ঢাকা ১১:৩০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নিজ এলাকায় কান্নায় ভেঙে পড়লেন সিলেট ৩ উপনির্বাচনে আঃ লীগের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সিলেট-৩(দক্ষিণ সুরমা-ফেঞ্চুগন্জ-বালাগন্জ) আসনে আসন্ন সংসদ উপ-নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী তারণ্যের অহংকার জননেতা হাবিবুর রহমান হাবিব তার নিজ জন্মস্হান এলাকা তেতলী ইউনিয়নের ভালকী গ্রামে শিল্পপতি জনাব মোনায়েম খাঁন বাবুল এর বাড়িতে তার সভাপতিত্বে ও জনাব সুজন উদ্দিন খাঁন ও সাবেক ছাত্রনেতা ইসলাম উদ্দিনের যৌথ পরিচালনায় দলমত নির্বিশেষে সর্বস্হরের মানুষের নির্বাচনী সভায় সর্বস্হরের মানুষের উপস্হিত দেখে আবেগ তাড়িত হয়ে কান্নায় ভেঙে পড়ে সমবেত মানুষের উদ্দেশ্যে আবেগ ভরা অনুভূতি নিয়ে আকুল কন্ঠে জ্বলভরা চোখ মুছে মুছে কান্না জড়িত কন্ঠে জননেতা হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন আমি আপনাদের সন্তার,আপনাদের দোয়া স্নেহ মমতা ভালবাসার উপর ভর করে এতটুকু আগবেড়েছি,আপনারা যদি সহযোগিতা না করতেন তাহলে কি আমি নৌকা নিয়ে আসতে পারি,আমার ভুল ত্রুটি নিজ এলাকার সন্তান হিসেবে ক্ষমা করে সবকয়টি ভোট দিয়ে নৌকা মার্কা কে বিজয়ী করুন,ইনশাআল্লাহ লালাবাজার বাসিয়া নদীর উপর নান্দনিক ব্রীজ সহ লালাবাজার-কামালবাজার রাস্তা ১৮ ফুট করে যোগউপযোগি করা হবে,এবং তাজপুর গোলাবাজার ফ্রাইওভার হলে লালাবাজারের দোষ কি? জননেতা হাবিব বলেন লালাবাজার ফ্রাইওভার করে এই বাজার কে জানজট মুক্ত করে ব্যবসার প্রাণকেন্দ্র করে গড়ে তুলবো।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্হানীয় জনপদের কৃতিসন্তান সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক জনাব হাজী ফারুক আহমদ বলেন এই বার যে সুযোগ এসেছে এই সুযোগ মনে হয় জীবনে আমরা আর পাবোনা, তিনি তেতলী ইউনিয়নের ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের দলমত নির্বিশেষে উপস্হিত জনগনের উদ্দেশ্যে কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন জননেতা হাবিবুর রহমান হাবিব আমাদের পরশি তাকে মূল্যায়িত করা আমাদের দায়িত্ব রয়েছে,তাই আমরা প্রত্যেক প্রত্যেকের সাথে যোগাযোগ করে ২৮ তারিখ সভাসুন্দর ভোটের সেন্টারে প্রমাণ করতে হবে হাবিবুর রহমান হাবিব এই প্রান্তিত জনপদের মানুষের আগামী দিনের উন্নয়নের প্রাণ পুরুষ।
সভায় বক্তব্য রাখেন তেতলী ইউনিয়ন পরিষদ এর ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জনাব ফারুক মিয়া,সভাসুন্দর প্রাথমিক বিদ্যালয় সেন্টার কমিটির আহবায়ক আওয়ামীলীগ নেতা জনাব জমির আলী মেম্বার,জনাব ওয়ারিছ আলী মেম্বার, জনাব তফজ্জুল আলী মেম্বার, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য সিতার মিয়া,আওয়ামীলীগ নেতা মনির মিয়া,হারুন উর রশীদ,আব্দুল হাফিজ, ছাত্রলীগ নেতা ইজ্জাতুল ফেরদৌস তোফায়েল,আল আমিন,নিজাম উদ্দিন, সভায় উপস্হিত ছিলেন দক্ষিণ সুরমা উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা তোয়াজিদুল হক তুহিন,বিশ্বনাথ উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা জনাব আনোয়ার আলী, তেতলী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক জনাব আব্দুল বাছিত রানা,সহসভা পতি আতিকুর রহমান, সাবেক ছাত্রনেতা নজরুল ইসলাম,আওয়ামীলীগ নেতা নাজিম উদ্দিন রাসেল, স্হানীয় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মানিক মিয়া,মোক্তার আলী,তবারক আলী, সহ বিভিন্ন শ্রেনীপেশার শীর্ষ নেতৃবৃন্দ।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

নিজ এলাকায় কান্নায় ভেঙে পড়লেন সিলেট ৩ উপনির্বাচনে আঃ লীগের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব

আপডেট সময় ০৩:৩৬:২১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৪ জুলাই ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সিলেট-৩(দক্ষিণ সুরমা-ফেঞ্চুগন্জ-বালাগন্জ) আসনে আসন্ন সংসদ উপ-নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী তারণ্যের অহংকার জননেতা হাবিবুর রহমান হাবিব তার নিজ জন্মস্হান এলাকা তেতলী ইউনিয়নের ভালকী গ্রামে শিল্পপতি জনাব মোনায়েম খাঁন বাবুল এর বাড়িতে তার সভাপতিত্বে ও জনাব সুজন উদ্দিন খাঁন ও সাবেক ছাত্রনেতা ইসলাম উদ্দিনের যৌথ পরিচালনায় দলমত নির্বিশেষে সর্বস্হরের মানুষের নির্বাচনী সভায় সর্বস্হরের মানুষের উপস্হিত দেখে আবেগ তাড়িত হয়ে কান্নায় ভেঙে পড়ে সমবেত মানুষের উদ্দেশ্যে আবেগ ভরা অনুভূতি নিয়ে আকুল কন্ঠে জ্বলভরা চোখ মুছে মুছে কান্না জড়িত কন্ঠে জননেতা হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন আমি আপনাদের সন্তার,আপনাদের দোয়া স্নেহ মমতা ভালবাসার উপর ভর করে এতটুকু আগবেড়েছি,আপনারা যদি সহযোগিতা না করতেন তাহলে কি আমি নৌকা নিয়ে আসতে পারি,আমার ভুল ত্রুটি নিজ এলাকার সন্তান হিসেবে ক্ষমা করে সবকয়টি ভোট দিয়ে নৌকা মার্কা কে বিজয়ী করুন,ইনশাআল্লাহ লালাবাজার বাসিয়া নদীর উপর নান্দনিক ব্রীজ সহ লালাবাজার-কামালবাজার রাস্তা ১৮ ফুট করে যোগউপযোগি করা হবে,এবং তাজপুর গোলাবাজার ফ্রাইওভার হলে লালাবাজারের দোষ কি? জননেতা হাবিব বলেন লালাবাজার ফ্রাইওভার করে এই বাজার কে জানজট মুক্ত করে ব্যবসার প্রাণকেন্দ্র করে গড়ে তুলবো।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্হানীয় জনপদের কৃতিসন্তান সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক জনাব হাজী ফারুক আহমদ বলেন এই বার যে সুযোগ এসেছে এই সুযোগ মনে হয় জীবনে আমরা আর পাবোনা, তিনি তেতলী ইউনিয়নের ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের দলমত নির্বিশেষে উপস্হিত জনগনের উদ্দেশ্যে কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন জননেতা হাবিবুর রহমান হাবিব আমাদের পরশি তাকে মূল্যায়িত করা আমাদের দায়িত্ব রয়েছে,তাই আমরা প্রত্যেক প্রত্যেকের সাথে যোগাযোগ করে ২৮ তারিখ সভাসুন্দর ভোটের সেন্টারে প্রমাণ করতে হবে হাবিবুর রহমান হাবিব এই প্রান্তিত জনপদের মানুষের আগামী দিনের উন্নয়নের প্রাণ পুরুষ।
সভায় বক্তব্য রাখেন তেতলী ইউনিয়ন পরিষদ এর ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জনাব ফারুক মিয়া,সভাসুন্দর প্রাথমিক বিদ্যালয় সেন্টার কমিটির আহবায়ক আওয়ামীলীগ নেতা জনাব জমির আলী মেম্বার,জনাব ওয়ারিছ আলী মেম্বার, জনাব তফজ্জুল আলী মেম্বার, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য সিতার মিয়া,আওয়ামীলীগ নেতা মনির মিয়া,হারুন উর রশীদ,আব্দুল হাফিজ, ছাত্রলীগ নেতা ইজ্জাতুল ফেরদৌস তোফায়েল,আল আমিন,নিজাম উদ্দিন, সভায় উপস্হিত ছিলেন দক্ষিণ সুরমা উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা তোয়াজিদুল হক তুহিন,বিশ্বনাথ উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা জনাব আনোয়ার আলী, তেতলী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক জনাব আব্দুল বাছিত রানা,সহসভা পতি আতিকুর রহমান, সাবেক ছাত্রনেতা নজরুল ইসলাম,আওয়ামীলীগ নেতা নাজিম উদ্দিন রাসেল, স্হানীয় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মানিক মিয়া,মোক্তার আলী,তবারক আলী, সহ বিভিন্ন শ্রেনীপেশার শীর্ষ নেতৃবৃন্দ।