ঢাকা ০১:৫৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মেঘনা নদীতে জেলেদের ট্রলারে ডাকাতি

গাজী তাহের লিটন:​ উপকূলীয় জেলা ভোলার তজুমদ্দিনের মেঘনায় মাছ ধরার ট্রলারে হামলা ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (১২ জুলাই) ভোর রাতে মেঘনার সোনার চর ও চর মোজাম্মেল এলাকায় এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।
এ সময় দস্যুরা অস্ত্রের মুখে মাকসুদ (৩৫) শফি মাঝি (৪০), নকিব (৪৫), হারুন (৪০) ও রুবেলকে (৩৫) অপহরণ করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় জেলেদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে মুক্তিপণ দিয়ে অপহৃত জেলেদের উদ্ধার করা হয়েছে।​ ​
অপহৃত জেলেদের সূত্রে জানা গেছে, মেঘনা নদীর সোনার চর ও চর মোজাম্মেল এলাকায় তজুমদ্দিনের শশীগঞ্জ ঘাটের শরীফ মাঝি, শফি মাঝি, মাকসুদ, নুর ইসলাম, নকিব, মহিউদ্দিন, কলাতলী ঘাটের হারুন ও রুবেল মাঝিসহ আটজন জেলে ট্রলার নিয়ে মাছ শিকার করছিলো।এ সময় একদল দস্যু ট্রলারে হামলা চালিয়ে মাছ, জাল, নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন লুট করে। এসময় ডাকাতরা অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে পাঁচ জেলেকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। অপহৃতদের ছাড়িয়ে নিতে মোবাইল নম্বর দিয়ে যায়। পরে ঘাটের আড়ৎদার ও স্বজনরা মিলে প্রশাসনকে না জানিয়ে বিকাশের মাধ্যমে মুক্তিপণের এক লাখ টাকা পরিশোধ করে। পরে ডাকাতরা মির্জাকালুর হাকিমুদ্দিন এলাকায় সোমবার ভোর ৫টার দিকে চোখ বাঁধা অবস্থায় অপহৃতদের ছেড়ে দেয়।​ ​
তজুমদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম জিয়াউল হক জানান, রাতে মেঘনায় ডাকাতি ও জেলে অপহরণের সংবাদ পেয়েছি। এখন পর্যন্ত কেউ আমাদের অভিযোগ করেনি, অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।​ ​
তজুমদ্দিন কোস্টগার্ড কন্টিনজেন্ট কমান্ডার মো. সুলতান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, মেঘনায় আমাদের নিয়মিত টহল অভিযান আছে।
এদিকে জেলেদের মাঝে ডাকাত আতংক বিরাজ করছে বলে জানাযায়।​
ট্যাগস

মেঘনা নদীতে জেলেদের ট্রলারে ডাকাতি

আপডেট সময় ০৩:১৮:৩৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৩ জুলাই ২০২১
গাজী তাহের লিটন:​ উপকূলীয় জেলা ভোলার তজুমদ্দিনের মেঘনায় মাছ ধরার ট্রলারে হামলা ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (১২ জুলাই) ভোর রাতে মেঘনার সোনার চর ও চর মোজাম্মেল এলাকায় এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।
এ সময় দস্যুরা অস্ত্রের মুখে মাকসুদ (৩৫) শফি মাঝি (৪০), নকিব (৪৫), হারুন (৪০) ও রুবেলকে (৩৫) অপহরণ করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় জেলেদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে মুক্তিপণ দিয়ে অপহৃত জেলেদের উদ্ধার করা হয়েছে।​ ​
অপহৃত জেলেদের সূত্রে জানা গেছে, মেঘনা নদীর সোনার চর ও চর মোজাম্মেল এলাকায় তজুমদ্দিনের শশীগঞ্জ ঘাটের শরীফ মাঝি, শফি মাঝি, মাকসুদ, নুর ইসলাম, নকিব, মহিউদ্দিন, কলাতলী ঘাটের হারুন ও রুবেল মাঝিসহ আটজন জেলে ট্রলার নিয়ে মাছ শিকার করছিলো।এ সময় একদল দস্যু ট্রলারে হামলা চালিয়ে মাছ, জাল, নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন লুট করে। এসময় ডাকাতরা অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে পাঁচ জেলেকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। অপহৃতদের ছাড়িয়ে নিতে মোবাইল নম্বর দিয়ে যায়। পরে ঘাটের আড়ৎদার ও স্বজনরা মিলে প্রশাসনকে না জানিয়ে বিকাশের মাধ্যমে মুক্তিপণের এক লাখ টাকা পরিশোধ করে। পরে ডাকাতরা মির্জাকালুর হাকিমুদ্দিন এলাকায় সোমবার ভোর ৫টার দিকে চোখ বাঁধা অবস্থায় অপহৃতদের ছেড়ে দেয়।​ ​
তজুমদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম জিয়াউল হক জানান, রাতে মেঘনায় ডাকাতি ও জেলে অপহরণের সংবাদ পেয়েছি। এখন পর্যন্ত কেউ আমাদের অভিযোগ করেনি, অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।​ ​
তজুমদ্দিন কোস্টগার্ড কন্টিনজেন্ট কমান্ডার মো. সুলতান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, মেঘনায় আমাদের নিয়মিত টহল অভিযান আছে।
এদিকে জেলেদের মাঝে ডাকাত আতংক বিরাজ করছে বলে জানাযায়।​