ঢাকা ১২:০৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিশ্বনাথের সুমেল ও দয়াল হত্যার ঘটনাস্থল পরিদর্শনে সিলেটের ডিআইজি

আহমদ আলী হিরন, বিশ্বনাথ থেকে-  সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি মফিজ উদ্দিন আহম্মেদ বলেছেন, বিশ্বনাথের স্কুল ছাত্র সুমেল ও কৃষক দয়াল হত্যাকারী, অস্ত্রবাজ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। শুধু সাইফুল নয় এ অঞ্চলের সকল অস্ত্রবাজ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। তিনি আসামিদের গ্রেফতার ও সাইফুল বাহিনীর দখলে থাকা ভূমি ও অস্ত্র উদ্ধার করা হবে বলে এলাকাবাসীকে আশ্বস্থ করেন।

সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেছেন, খুনি সাইফুলই সুমেলকে হত্যা করেছে। তা প্রাথমিক তথ্যে প্রমাণ মিলেছে। তাই সাইফুল ও তার সহযোগীদের ফাঁসি হয় সেই ব্যবস্থা করা হবে। তাদের শাস্তি দেখে আর কোর সাইফুলের উত্থান যেন না হয় সেই ব্যবস্থা করা হবে এবং আসামিদের শীঘ্রই আইনের আওতায় আনা হবে।

তিনি আজ বুধবার (৫ মে) দুপুরে সরজমিনে সুমেল হত্যাকান্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি ছরকুম আলী দয়াল হত্যাকারীরা ছাড় পাবে না বলে উল্লেখ করেন। ডিআইজি চাউলধনি হাওরের সমস্যা ও সমাধান কি হতে পারে এলাকাবাসীর নিকট থেকে মতামত গ্রহণ করেন। এলাকাবাসী স্থানীয় থানা পুলিশের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ তুলে ধরেন। এসব শুনে ডিআইজি অসন্তোষ প্রকাশ করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ওসমানী নগরের অতিরিক্ত সার্কেল রফিকুল ইসলাম, সিলেট গোয়েন্দা পুলিশের ওসি আসিশ, বিশ্বনাথ থানার ওসি শামীম মূসা, ওসি তদন্ত রমা প্রসাদ চক্রবর্তী।

এলাকাবাসীর পক্ষে বক্তব্যে রাখেন, দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদেও চেয়ারম্যান আমির আলী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আবুল কালাম, ইউ পি সদস্য আনোয়ার হোসেন, নিহত সুমেলের চাচা মনির উদ্দিন, নজির উদ্দিন, দয়াল হত্যা মামলার বাদী আহমদ আলী প্রমুখ।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

বিশ্বনাথের সুমেল ও দয়াল হত্যার ঘটনাস্থল পরিদর্শনে সিলেটের ডিআইজি

আপডেট সময় ০৫:৪৯:৫৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ মে ২০২১

আহমদ আলী হিরন, বিশ্বনাথ থেকে-  সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি মফিজ উদ্দিন আহম্মেদ বলেছেন, বিশ্বনাথের স্কুল ছাত্র সুমেল ও কৃষক দয়াল হত্যাকারী, অস্ত্রবাজ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। শুধু সাইফুল নয় এ অঞ্চলের সকল অস্ত্রবাজ সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। তিনি আসামিদের গ্রেফতার ও সাইফুল বাহিনীর দখলে থাকা ভূমি ও অস্ত্র উদ্ধার করা হবে বলে এলাকাবাসীকে আশ্বস্থ করেন।

সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেছেন, খুনি সাইফুলই সুমেলকে হত্যা করেছে। তা প্রাথমিক তথ্যে প্রমাণ মিলেছে। তাই সাইফুল ও তার সহযোগীদের ফাঁসি হয় সেই ব্যবস্থা করা হবে। তাদের শাস্তি দেখে আর কোর সাইফুলের উত্থান যেন না হয় সেই ব্যবস্থা করা হবে এবং আসামিদের শীঘ্রই আইনের আওতায় আনা হবে।

তিনি আজ বুধবার (৫ মে) দুপুরে সরজমিনে সুমেল হত্যাকান্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি ছরকুম আলী দয়াল হত্যাকারীরা ছাড় পাবে না বলে উল্লেখ করেন। ডিআইজি চাউলধনি হাওরের সমস্যা ও সমাধান কি হতে পারে এলাকাবাসীর নিকট থেকে মতামত গ্রহণ করেন। এলাকাবাসী স্থানীয় থানা পুলিশের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ তুলে ধরেন। এসব শুনে ডিআইজি অসন্তোষ প্রকাশ করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ওসমানী নগরের অতিরিক্ত সার্কেল রফিকুল ইসলাম, সিলেট গোয়েন্দা পুলিশের ওসি আসিশ, বিশ্বনাথ থানার ওসি শামীম মূসা, ওসি তদন্ত রমা প্রসাদ চক্রবর্তী।

এলাকাবাসীর পক্ষে বক্তব্যে রাখেন, দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদেও চেয়ারম্যান আমির আলী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আবুল কালাম, ইউ পি সদস্য আনোয়ার হোসেন, নিহত সুমেলের চাচা মনির উদ্দিন, নজির উদ্দিন, দয়াল হত্যা মামলার বাদী আহমদ আলী প্রমুখ।