ঢাকা ০২:২৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কঠোর শর্তসাপেক্ষে নিয়মিত বানিজ্যিক ফ্লাইট চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ

অতি ঝুঁকিপূর্ণ’ বিবেচিত দেশগুলো বাদে ‘কঠোর শর্তসাপেক্ষে’ নিয়মিত বাণিজ্যিক ফ্লাইটে যাত্রী পরিবহনের অনুমতি দিয়েছে বাংলাদেশের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। আজ শনিবার থেকেই এসব ফ্লাইট চলাচল শুরু হবে বলে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) দেওয়া প্রজ্ঞাপনে বিষয়টি জানানো হয়েছে। এক্ষেত্রে কয়েকটি ক্যাটাগরিতে ভাগ করে কিছু শর্ত সাপেক্ষে দেশগুলোর তালিকা দিয়েছে বেবিচক।

এ-ক্যাটাগরিতে যেসব দেশ রয়েছে, সেসব দেশে কেউ যেতে পারবেন না বা বিদেশি কেউ এসব দেশ থেকে আসতে পারবেন না। তবে যেসব অনাবাসী বাংলাদেশি অন্তত ১৫ দিন পূর্বে এসব দেশে গিয়েছেন, তারা বাংলাদেশে ফিরতে পারবেন, তবে তাদের দেশে ফিরে সরকার নির্ধারিত হোটেলে নিজ খরচে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। দেশে আসার আগেই হোটেল বুকিং নিশ্চিত করতে হবে। এসব দেশের মধ্যে রয়েছে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, কলোম্বিয়া, কোস্টারিকা, সাইপ্রাস, জর্জিয়া, ভারত, ইরান, মঙ্গোলিয়া, ওমান, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং তিউনিসিয়া।

ক্যাটাগরি বি-তে যেসব দেশ রয়েছে, সেসব দেশের সকল নাগরিকরা বাংলাদেশে আসতে পারবেন। তবে এই দেশে আসার পর নিজেদের খরচে সরকার নির্ধারিত হোটেলে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। দেশে আসার আগেই হোটেল বুকিং নিশ্চিত করতে হবে। যাত্রীদের এসব দেশে যাওয়ার ক্ষেত্রে কোন নিষেধাজ্ঞা নেই। এসব দেশের মধ্যে রয়েছে অস্ট্রিয়া, আজারবাইজান, বাহরাইন, বেলজিয়াম, চিলি, ক্রোয়েশিয়া, এস্তোনিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি, গ্রীস, হাঙ্গেরি, ইরাক, কুয়েত, ইটালি, লাটভিয়া, লিথুয়ানিয়া, নেদারল্যান্ডস, প্যারাগুয়ে, পেরু, কাতার, স্লোভেনিয়া, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, তুরস্ক এবং উরুগুয়ে।

বাহরাইন, কুয়েত ও কাতারের যাত্রীদের বাধ্যতামূলকভাবে তিনদিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনেও থাকতে হবে। গ্রুপ সি-তে রয়েছে এর বাইরের দেশগুলো, যেখানে রয়েছে আমেরিকা, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, চীন, জাপান, কোরিয়া ইত্যাদি দেশ। এসব দেশে যাওয়া-আসার ক্ষেত্রে কোন বাধা নেই। তবে এসব দেশ থেকে যারা ফিরবেন, তাদের বাড়িতে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। করোনাভাইরাসের কোন লক্ষণ দেখা দিলে তাদের হাসপাতালে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করাতে হবে

ট্যাগস

কঠোর শর্তসাপেক্ষে নিয়মিত বানিজ্যিক ফ্লাইট চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ

আপডেট সময় ০৭:৩২:৩৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২ মে ২০২১

অতি ঝুঁকিপূর্ণ’ বিবেচিত দেশগুলো বাদে ‘কঠোর শর্তসাপেক্ষে’ নিয়মিত বাণিজ্যিক ফ্লাইটে যাত্রী পরিবহনের অনুমতি দিয়েছে বাংলাদেশের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। আজ শনিবার থেকেই এসব ফ্লাইট চলাচল শুরু হবে বলে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) দেওয়া প্রজ্ঞাপনে বিষয়টি জানানো হয়েছে। এক্ষেত্রে কয়েকটি ক্যাটাগরিতে ভাগ করে কিছু শর্ত সাপেক্ষে দেশগুলোর তালিকা দিয়েছে বেবিচক।

এ-ক্যাটাগরিতে যেসব দেশ রয়েছে, সেসব দেশে কেউ যেতে পারবেন না বা বিদেশি কেউ এসব দেশ থেকে আসতে পারবেন না। তবে যেসব অনাবাসী বাংলাদেশি অন্তত ১৫ দিন পূর্বে এসব দেশে গিয়েছেন, তারা বাংলাদেশে ফিরতে পারবেন, তবে তাদের দেশে ফিরে সরকার নির্ধারিত হোটেলে নিজ খরচে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। দেশে আসার আগেই হোটেল বুকিং নিশ্চিত করতে হবে। এসব দেশের মধ্যে রয়েছে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, কলোম্বিয়া, কোস্টারিকা, সাইপ্রাস, জর্জিয়া, ভারত, ইরান, মঙ্গোলিয়া, ওমান, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং তিউনিসিয়া।

ক্যাটাগরি বি-তে যেসব দেশ রয়েছে, সেসব দেশের সকল নাগরিকরা বাংলাদেশে আসতে পারবেন। তবে এই দেশে আসার পর নিজেদের খরচে সরকার নির্ধারিত হোটেলে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। দেশে আসার আগেই হোটেল বুকিং নিশ্চিত করতে হবে। যাত্রীদের এসব দেশে যাওয়ার ক্ষেত্রে কোন নিষেধাজ্ঞা নেই। এসব দেশের মধ্যে রয়েছে অস্ট্রিয়া, আজারবাইজান, বাহরাইন, বেলজিয়াম, চিলি, ক্রোয়েশিয়া, এস্তোনিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি, গ্রীস, হাঙ্গেরি, ইরাক, কুয়েত, ইটালি, লাটভিয়া, লিথুয়ানিয়া, নেদারল্যান্ডস, প্যারাগুয়ে, পেরু, কাতার, স্লোভেনিয়া, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, তুরস্ক এবং উরুগুয়ে।

বাহরাইন, কুয়েত ও কাতারের যাত্রীদের বাধ্যতামূলকভাবে তিনদিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনেও থাকতে হবে। গ্রুপ সি-তে রয়েছে এর বাইরের দেশগুলো, যেখানে রয়েছে আমেরিকা, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, চীন, জাপান, কোরিয়া ইত্যাদি দেশ। এসব দেশে যাওয়া-আসার ক্ষেত্রে কোন বাধা নেই। তবে এসব দেশ থেকে যারা ফিরবেন, তাদের বাড়িতে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। করোনাভাইরাসের কোন লক্ষণ দেখা দিলে তাদের হাসপাতালে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করাতে হবে