ঢাকা ১১:০৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

৫টি দেশের প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য বিশেষ ফ্লাইট চালু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ সরকার।

বাংলাদেশ সরকার সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই), ওমান, কাতার ও সিঙ্গাপুর প্রবাসীদের জন্য শিগগিরই বিশেষ ফ্লাইট চালু করতে যাচ্ছে।
এক ভার্চুয়াল সভা শেষে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) এ সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত ঘোষণা আসতে পারে বলে যানা যায়।
মহামারী করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতির কারণে আরোপিত নতুন বিধিনিষেধের ফলে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ রয়েছে। এতে আটকা পড়েছেন অনেক বিদেশগামী। বিশেষ করে বিপাকে পড়েছেন শ্রমিকরা।
এ বিষয়ে পররাষ্ট্রসচিবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরও দুটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
বিদেশগামী যাত্রীদের করোনা নেগেটিভ সনদসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে এয়ারপোর্টে আনার দায়িত্ব রিক্রুটিং এজেন্সির।
আর জরুরি প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট বাংলাদেশ মিশনের ছাড়পত্র, দেশে প্রযোজ্য কোয়ারেন্টিন শর্ত মেনে এবং কভিড নেগেটিভ সনদ নিয়ে দেশে আসতে পারবেন প্রবাসীরা। সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে দেশে আটকা পড়া অসংখ্য প্রবাসী শ্রমিকদের জন্য এটি একটি সুখবর হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

৫টি দেশের প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য বিশেষ ফ্লাইট চালু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ সরকার।

আপডেট সময় ০৮:৩৭:১৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১

বাংলাদেশ সরকার সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই), ওমান, কাতার ও সিঙ্গাপুর প্রবাসীদের জন্য শিগগিরই বিশেষ ফ্লাইট চালু করতে যাচ্ছে।
এক ভার্চুয়াল সভা শেষে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) এ সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত ঘোষণা আসতে পারে বলে যানা যায়।
মহামারী করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতির কারণে আরোপিত নতুন বিধিনিষেধের ফলে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ রয়েছে। এতে আটকা পড়েছেন অনেক বিদেশগামী। বিশেষ করে বিপাকে পড়েছেন শ্রমিকরা।
এ বিষয়ে পররাষ্ট্রসচিবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরও দুটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
বিদেশগামী যাত্রীদের করোনা নেগেটিভ সনদসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে এয়ারপোর্টে আনার দায়িত্ব রিক্রুটিং এজেন্সির।
আর জরুরি প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট বাংলাদেশ মিশনের ছাড়পত্র, দেশে প্রযোজ্য কোয়ারেন্টিন শর্ত মেনে এবং কভিড নেগেটিভ সনদ নিয়ে দেশে আসতে পারবেন প্রবাসীরা। সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে দেশে আটকা পড়া অসংখ্য প্রবাসী শ্রমিকদের জন্য এটি একটি সুখবর হবে বলে মনে করা হচ্ছে।