ঢাকা ১১:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কোনো অপশক্তিই বাংলাদেশের উন্নয়নকে থামিয়ে দিতে পারবেনা- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধনী ‍দিনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। কোনো অপশক্তিই বাংলাদেশের উন্নয়নকে থামিয়ে দিতে পারবে না।’

বুধবার (১৭ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৪টায় জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে শিশুদের কণ্ঠে জাতীয় সংগীতের পরিবেশনার মধ্য দিয়ে ১০ দিনের অনুষ্ঠানমালা শুরু হয়। অনুষ্ঠানের সভাপতির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমরা এমন সময় মুজিববর্ষ উৎযাপন করছি, যখন বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে শেখ হাসিনা দলের নেতাকর্মীদের সর্তক করে বলেন, দেশ বিরোধীরা এখনও সক্রিয় রয়েছে। সবাই মিলে তাদের প্রতিহত করে আসুন দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাই। এখন আমাদের সামনে এগিয়ে যাওয়ার পালা।
শেখ হাসিনা তার বক্তব্যে বাংলাদেশকে ২০৪১ সালের মধ্যে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত করে গড়ে তোলার প্রতিজ্ঞা ব্যক্ত করেন। যেসব বন্ধু প্রতীম দেশ যুদ্ধ পরবর্তী বাংলাদেশের পাশে দাঁড়িয়েছিলো তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করেন শেখ হাসিনা। মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ায় মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম মোহামেদ সলিহকে শুভেচ্ছা জানান। মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানটি ২৬ মার্চ পর্যন্ত প্রতিদিন বিকেল সাড়ে ৪টায় অনুষ্ঠিত হবে।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

কোনো অপশক্তিই বাংলাদেশের উন্নয়নকে থামিয়ে দিতে পারবেনা- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

আপডেট সময় ০৪:১৫:২৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ মার্চ ২০২১

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধনী ‍দিনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। কোনো অপশক্তিই বাংলাদেশের উন্নয়নকে থামিয়ে দিতে পারবে না।’

বুধবার (১৭ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৪টায় জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে শিশুদের কণ্ঠে জাতীয় সংগীতের পরিবেশনার মধ্য দিয়ে ১০ দিনের অনুষ্ঠানমালা শুরু হয়। অনুষ্ঠানের সভাপতির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমরা এমন সময় মুজিববর্ষ উৎযাপন করছি, যখন বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে শেখ হাসিনা দলের নেতাকর্মীদের সর্তক করে বলেন, দেশ বিরোধীরা এখনও সক্রিয় রয়েছে। সবাই মিলে তাদের প্রতিহত করে আসুন দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাই। এখন আমাদের সামনে এগিয়ে যাওয়ার পালা।
শেখ হাসিনা তার বক্তব্যে বাংলাদেশকে ২০৪১ সালের মধ্যে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত করে গড়ে তোলার প্রতিজ্ঞা ব্যক্ত করেন। যেসব বন্ধু প্রতীম দেশ যুদ্ধ পরবর্তী বাংলাদেশের পাশে দাঁড়িয়েছিলো তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করেন শেখ হাসিনা। মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ায় মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম মোহামেদ সলিহকে শুভেচ্ছা জানান। মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানটি ২৬ মার্চ পর্যন্ত প্রতিদিন বিকেল সাড়ে ৪টায় অনুষ্ঠিত হবে।