ঢাকা ১০:২৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রানঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বিশ্বে প্রায় ১২ কোটি!

মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে সারা বিশ্বের অবস্থা এখন বিপর্যস্ত ও ভয়ংকর পরিস্থিতির মুখোমুখি রয়েছে। করোনা প্রতিরোধের টিকা আবিষ্কার হয়েছে এবং তা প্রয়োগ করা হচ্ছে তবে তারপরও বিশ্বে মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা প্রতিদিনই বেড়ে চলেছে। পৃথিবী জুড়ে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১১ কোটি ৮১ লাখ ৪৭ হাজার ৪৮৪ জন। মারা গেছেন ২৬ লাখ ২১ হাজার ১৭০ জন। এ মহামারি থেকে বিশ্বব্যাপী সুস্থ হয়েছেন ৯ কোটি ৩৮ লাখ ৩৫ হাজার ৪৭৯ জন। বুধবার বাংলাদেশ সময় সকাল সোয়া আটটায় আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যান ভিত্তিক ওয়েব সাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার থেকে এ তথ্য জানা গেছে। তাদের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় ৫ লাখ ৪০ হাজার ৫৭৪ জনের মৃত্যু হয়েছে আর আক্রান্ত প্রায় ৩ কোটি। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত।
সেখানে শনাক্ত ১ কোটি ১২ লাখ ৬১ হাজার ৪৭০ জন। এদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৫৮ হাজার ৭৯ জনের। মৃত্যু বিবেচনায় দেশটি বিশ্বে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে। তৃতীয় অবস্থানে ব্রাজিল। এখানে আক্রান্ত ১ কোটি ১১ লাখ ২৫ হাজার ১৭ জন, মৃত্যু ২ লাখ ৬৮ হাজার ৫৬৮ জনের। তালিকায় চতুর্থ রাশিয়া পঞ্চম যুক্তরাজ্য, ষষ্ঠ ফ্রান্স, সপ্তম স্পেন, ইতালি অষ্টম, তুরস্ক নবম ও জার্মানি দশম স্থানে রয়েছে। আর বাংলাদেশের অবস্থান ৩৩তম। এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে বিশ্ব ভয়ানক এবং বিপর্যস্ত পরিস্থিতির মুখোমুখি। এমন অবস্থায় টিকা কর্মসূচিও নতুন আশার সঞ্চার করেছে। বিভিন্ন দেশে টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। আলোচনায় এসেছে টিকার সুষ্ঠু বন্টনের বিষয়টিও। পত্র-পত্রিকার খবর অনুযায়ী ২০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাংলাদেশে ২৮ লাখ টিকাদান সম্পন্ন হয়েছে। বৈশ্বিক টিকাদান কর্মসূচিতে বাংলাদেশ ১১তম স্থানে রয়েছে যা স্পেন, পোল্যান্ড এবং কানাডার চেয়ে বেশি। টিকার বিষয়টি আমলে নেওয়ার পাশাপাশি স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা, অকারণে ঘোরাফেরা না করা, মাস্ক পরাসহ প্রয়োজনীয় সচেতনতা এ সময়টা অত্যন্ত জরুরি।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

প্রানঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বিশ্বে প্রায় ১২ কোটি!

আপডেট সময় ০১:৩২:৫৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ মার্চ ২০২১

মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে সারা বিশ্বের অবস্থা এখন বিপর্যস্ত ও ভয়ংকর পরিস্থিতির মুখোমুখি রয়েছে। করোনা প্রতিরোধের টিকা আবিষ্কার হয়েছে এবং তা প্রয়োগ করা হচ্ছে তবে তারপরও বিশ্বে মৃত্যু ও শনাক্তের সংখ্যা প্রতিদিনই বেড়ে চলেছে। পৃথিবী জুড়ে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১১ কোটি ৮১ লাখ ৪৭ হাজার ৪৮৪ জন। মারা গেছেন ২৬ লাখ ২১ হাজার ১৭০ জন। এ মহামারি থেকে বিশ্বব্যাপী সুস্থ হয়েছেন ৯ কোটি ৩৮ লাখ ৩৫ হাজার ৪৭৯ জন। বুধবার বাংলাদেশ সময় সকাল সোয়া আটটায় আন্তর্জাতিক পরিসংখ্যান ভিত্তিক ওয়েব সাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার থেকে এ তথ্য জানা গেছে। তাদের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় ৫ লাখ ৪০ হাজার ৫৭৪ জনের মৃত্যু হয়েছে আর আক্রান্ত প্রায় ৩ কোটি। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত।
সেখানে শনাক্ত ১ কোটি ১২ লাখ ৬১ হাজার ৪৭০ জন। এদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৫৮ হাজার ৭৯ জনের। মৃত্যু বিবেচনায় দেশটি বিশ্বে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে। তৃতীয় অবস্থানে ব্রাজিল। এখানে আক্রান্ত ১ কোটি ১১ লাখ ২৫ হাজার ১৭ জন, মৃত্যু ২ লাখ ৬৮ হাজার ৫৬৮ জনের। তালিকায় চতুর্থ রাশিয়া পঞ্চম যুক্তরাজ্য, ষষ্ঠ ফ্রান্স, সপ্তম স্পেন, ইতালি অষ্টম, তুরস্ক নবম ও জার্মানি দশম স্থানে রয়েছে। আর বাংলাদেশের অবস্থান ৩৩তম। এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে বিশ্ব ভয়ানক এবং বিপর্যস্ত পরিস্থিতির মুখোমুখি। এমন অবস্থায় টিকা কর্মসূচিও নতুন আশার সঞ্চার করেছে। বিভিন্ন দেশে টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। আলোচনায় এসেছে টিকার সুষ্ঠু বন্টনের বিষয়টিও। পত্র-পত্রিকার খবর অনুযায়ী ২০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাংলাদেশে ২৮ লাখ টিকাদান সম্পন্ন হয়েছে। বৈশ্বিক টিকাদান কর্মসূচিতে বাংলাদেশ ১১তম স্থানে রয়েছে যা স্পেন, পোল্যান্ড এবং কানাডার চেয়ে বেশি। টিকার বিষয়টি আমলে নেওয়ার পাশাপাশি স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা, অকারণে ঘোরাফেরা না করা, মাস্ক পরাসহ প্রয়োজনীয় সচেতনতা এ সময়টা অত্যন্ত জরুরি।