ঢাকা ০১:৫৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশ এখন মালয়েশিয়ার সাথে একই কাতারে দাড়িয়ে আছে- অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল

ডেস্ক রিপোর্টঃ আমাদের প্রানপ্রিয় বাংলাদেশ আজ স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা লাভ করছে। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি আমরা অভিশাপ মুক্ত হলাম। আমরা দরিদ্রতম দেশের মানুষ ছিলাম, আমাদেরকে মিসকিন বলা হতো। এখন আর আমাদেরকে মিসকিন বলবে না। আজকে আমরা মালয়েশিয়ার সঙ্গে একই কাতারে আছি, এটা আমাদের গর্ব। বলেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল।

মঙ্গলবার মতিঝিলে সোনালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে ‘বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ও মুজিব কর্নার’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, শুধুমাত্র একটি ম্যুরাল আর একটি মুজিব কর্নার করে দায়িত্ব শেষ হবে না। এখানে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ভালো ভালো বইগুলো রাখতে হবে। যাতে মানুষজন সময় পেলে এখানে এসে ১০-১৫ মিনিট বসে কিছু পড়তে পারে। বিদেশে এ ধরনের সিস্টেম চালু আছে।
বঙ্গবন্ধু সব ভালো কাজের অনুপ্রেরণার উৎস উল্লেখ করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কখনো নীতির সঙ্গে আপস করেননি। বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন এদেশের মানুষের ভৌগলিক স্বাধীনতা, রাজনৈতিক মুক্তি একটি ভূখণ্ড। একটি মানচিত্র দিয়ে গেছেন তিনি। বাঙালি জাতির অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য জীবন উৎসর্গ করে গেছেন। তারই দেখানো পথে অসমাপ্ত কাজগুলো করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব আসাদুল ইসলাম, সোনালী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান জিয়াউল হাসান সিদ্দিকী।
সোনালী ব্যাংকের দ্বিতীয় তলায় একটি কক্ষে মুজিব কর্নার করা হয়েছে। সেখানে ১৯৭২ সালে রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী, রূপালী, অগ্রণী ও জনতা ব্যাংক সৃষ্টির অধ্যাদেশে বঙ্গবন্ধুর স্বাক্ষরের আলোকচিত্র, তাকে নিয়ে লেখা বিভিন্ন বই, বিভিন্ন ঐতিহাসিক আলোকচিত্র ও ম্যুরাল দিয়ে সাজানো হয়েছে।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

বাংলাদেশ এখন মালয়েশিয়ার সাথে একই কাতারে দাড়িয়ে আছে- অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল

আপডেট সময় ১১:৪৪:১৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ মার্চ ২০২১

ডেস্ক রিপোর্টঃ আমাদের প্রানপ্রিয় বাংলাদেশ আজ স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা লাভ করছে। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি আমরা অভিশাপ মুক্ত হলাম। আমরা দরিদ্রতম দেশের মানুষ ছিলাম, আমাদেরকে মিসকিন বলা হতো। এখন আর আমাদেরকে মিসকিন বলবে না। আজকে আমরা মালয়েশিয়ার সঙ্গে একই কাতারে আছি, এটা আমাদের গর্ব। বলেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল।

মঙ্গলবার মতিঝিলে সোনালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে ‘বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ও মুজিব কর্নার’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, শুধুমাত্র একটি ম্যুরাল আর একটি মুজিব কর্নার করে দায়িত্ব শেষ হবে না। এখানে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ভালো ভালো বইগুলো রাখতে হবে। যাতে মানুষজন সময় পেলে এখানে এসে ১০-১৫ মিনিট বসে কিছু পড়তে পারে। বিদেশে এ ধরনের সিস্টেম চালু আছে।
বঙ্গবন্ধু সব ভালো কাজের অনুপ্রেরণার উৎস উল্লেখ করে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কখনো নীতির সঙ্গে আপস করেননি। বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন এদেশের মানুষের ভৌগলিক স্বাধীনতা, রাজনৈতিক মুক্তি একটি ভূখণ্ড। একটি মানচিত্র দিয়ে গেছেন তিনি। বাঙালি জাতির অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য জীবন উৎসর্গ করে গেছেন। তারই দেখানো পথে অসমাপ্ত কাজগুলো করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব আসাদুল ইসলাম, সোনালী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান জিয়াউল হাসান সিদ্দিকী।
সোনালী ব্যাংকের দ্বিতীয় তলায় একটি কক্ষে মুজিব কর্নার করা হয়েছে। সেখানে ১৯৭২ সালে রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী, রূপালী, অগ্রণী ও জনতা ব্যাংক সৃষ্টির অধ্যাদেশে বঙ্গবন্ধুর স্বাক্ষরের আলোকচিত্র, তাকে নিয়ে লেখা বিভিন্ন বই, বিভিন্ন ঐতিহাসিক আলোকচিত্র ও ম্যুরাল দিয়ে সাজানো হয়েছে।