ঢাকা ০৭:৪১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৯ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিশ্বনাথে মাদ্রাসা ছাত্রীকে অপহরণ করে ধর্ষণ! প্রেমিক গ্রেফতার

বিশ্বনাথ সংবাদদাতাঃ সিলেটের বিশ্বনাথে অষ্টম শ্রেণির মাদ্রাসা ছাত্রীকে (১৬) অপহরণ করে চারদিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে মো. আমিন (২২) নামে এক কথিত প্রেমিককে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। তিনি উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের গোমরাগুল গ্রামের ইকবাল মিয়ার ছেলে। বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাত ৪টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার ও অপহৃত মাদ্রাসী ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়। এর আগে ওই রাত ১২টায় আমিনের বিরুদ্ধে অপরহণ ও ধর্ষণের অভিযোগে বিশ্বনাথ থানায় মামলা (নং ০৫) দায়ের করেন মাদ্রাসা ছাত্রীর পিতা।
মামলার এজাহারে মাদ্রাসা ছাত্রীর পিতা উল্লেখ করেন, মাদ্রাসায় যাওয়া আসার পথে মো. আমিন আমার মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দিত। বিষয়টি সে আমাদেরকে জানায়। আমরা মেয়েকে সতর্ক করে দেয়ার পরও এক পর্যায়ে তার সাথে আমিনের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত ৩১ জানুয়ারি রাত সাড়ে ৯টার দিকে আমার মেয়ে গোয়াল ঘরে তালা দিতে গেলে পূর্ব থেকে ওৎপেতে থাকা আমিন একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশা করে তাকে অপরহণ করে নিয়ে যায়। মেয়েকে খুঁজতে গিয়ে জানতে পারি, তাকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করছে আমিন।
কথিত প্রেমিক আমিনকে গ্রেপ্তার ও অপহৃত মাদ্রাসা ছাত্রীকে উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামীম মুসা বলেন, আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে আসামীকে সিলেটের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং উদ্ধার হওয়া মাদ্রাসা ছাত্রীকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) পাঠানো হয়েছে।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

বিশ্বনাথে মাদ্রাসা ছাত্রীকে অপহরণ করে ধর্ষণ! প্রেমিক গ্রেফতার

আপডেট সময় ১০:১১:৫৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১

বিশ্বনাথ সংবাদদাতাঃ সিলেটের বিশ্বনাথে অষ্টম শ্রেণির মাদ্রাসা ছাত্রীকে (১৬) অপহরণ করে চারদিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে মো. আমিন (২২) নামে এক কথিত প্রেমিককে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। তিনি উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের গোমরাগুল গ্রামের ইকবাল মিয়ার ছেলে। বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাত ৪টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার ও অপহৃত মাদ্রাসী ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়। এর আগে ওই রাত ১২টায় আমিনের বিরুদ্ধে অপরহণ ও ধর্ষণের অভিযোগে বিশ্বনাথ থানায় মামলা (নং ০৫) দায়ের করেন মাদ্রাসা ছাত্রীর পিতা।
মামলার এজাহারে মাদ্রাসা ছাত্রীর পিতা উল্লেখ করেন, মাদ্রাসায় যাওয়া আসার পথে মো. আমিন আমার মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দিত। বিষয়টি সে আমাদেরকে জানায়। আমরা মেয়েকে সতর্ক করে দেয়ার পরও এক পর্যায়ে তার সাথে আমিনের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত ৩১ জানুয়ারি রাত সাড়ে ৯টার দিকে আমার মেয়ে গোয়াল ঘরে তালা দিতে গেলে পূর্ব থেকে ওৎপেতে থাকা আমিন একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশা করে তাকে অপরহণ করে নিয়ে যায়। মেয়েকে খুঁজতে গিয়ে জানতে পারি, তাকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করছে আমিন।
কথিত প্রেমিক আমিনকে গ্রেপ্তার ও অপহৃত মাদ্রাসা ছাত্রীকে উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামীম মুসা বলেন, আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে আসামীকে সিলেটের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং উদ্ধার হওয়া মাদ্রাসা ছাত্রীকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) পাঠানো হয়েছে।