ঢাকা ০২:৫৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ মে ২০২৪, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লন্ডন সহ দক্ষিনাঞ্চলের প্রায় ২০ মিলিয়ন মানুষের বড়দিনের অনুষ্ঠান বাতিল।

ডেস্ক রিপোর্টঃ পুরো গ্রেটার লন্ডনের ৩২ টি বারা সহ সাউথইস্টের শহরগুলোতে আগামীকাল রোববার সকাল থেকে ক্রিসমাসের আয়োজন বাতিল করে টিয়ার ৪ এর আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। যা পূর্বের লকডাউনে ছিলো। আজ শনিবার বৃটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ঘোষণা করেছেন।
নতুন টিয়ার-৪ উচ্চ স্তরের অধীনে ভ্রমণ এবং বিভিন্ন পরিবারের মিশ্রণ সম্পুর্ন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।
কঠোর এই পদক্ষেপের কারনে এইসব এলাকার মিলিয়ন জনগণের ক্রিসমাসের আয়োজন মলিন হয়ে গেছে।
বরিস জনসন এখন প্রায় ২০ মিলিয়ন ব্রিটিশ তাদের পরিবারকে এই বড়দিনে দেখতে পাবে না বলে জানিয়েছে।
অন্যান্য নিম্ন স্তরগুলোর বাসিন্দাদের মধ্যে যে কোনও ব্যক্তি কেবল ২৪ ঘন্টা তাদের পরিবারের লোককে দেখতে পারবে।
আগামীকাল রোববার সকাল থেকে হেয়ার ড্রেসার, জীম, সহ নন এসেন্সিয়াল সবগুলো দোকান বন্ধ করে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বরিস জনসন।
উল্লেখ্য গত কয়েকদিন ধরে এই সব এলাকাগুলো সহ পুরো বৃটেনের করোনা পরিস্থিতি মারাত্মক আকার ধারণ করায় প্রধানমন্ত্রী তড়িঘড়ি করে এই কঠোর পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয়েছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

ট্যাগস

লন্ডন সহ দক্ষিনাঞ্চলের প্রায় ২০ মিলিয়ন মানুষের বড়দিনের অনুষ্ঠান বাতিল।

আপডেট সময় ১১:১০:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০২০

ডেস্ক রিপোর্টঃ পুরো গ্রেটার লন্ডনের ৩২ টি বারা সহ সাউথইস্টের শহরগুলোতে আগামীকাল রোববার সকাল থেকে ক্রিসমাসের আয়োজন বাতিল করে টিয়ার ৪ এর আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। যা পূর্বের লকডাউনে ছিলো। আজ শনিবার বৃটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ঘোষণা করেছেন।
নতুন টিয়ার-৪ উচ্চ স্তরের অধীনে ভ্রমণ এবং বিভিন্ন পরিবারের মিশ্রণ সম্পুর্ন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।
কঠোর এই পদক্ষেপের কারনে এইসব এলাকার মিলিয়ন জনগণের ক্রিসমাসের আয়োজন মলিন হয়ে গেছে।
বরিস জনসন এখন প্রায় ২০ মিলিয়ন ব্রিটিশ তাদের পরিবারকে এই বড়দিনে দেখতে পাবে না বলে জানিয়েছে।
অন্যান্য নিম্ন স্তরগুলোর বাসিন্দাদের মধ্যে যে কোনও ব্যক্তি কেবল ২৪ ঘন্টা তাদের পরিবারের লোককে দেখতে পারবে।
আগামীকাল রোববার সকাল থেকে হেয়ার ড্রেসার, জীম, সহ নন এসেন্সিয়াল সবগুলো দোকান বন্ধ করে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বরিস জনসন।
উল্লেখ্য গত কয়েকদিন ধরে এই সব এলাকাগুলো সহ পুরো বৃটেনের করোনা পরিস্থিতি মারাত্মক আকার ধারণ করায় প্রধানমন্ত্রী তড়িঘড়ি করে এই কঠোর পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয়েছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।