ঢাকা ০১:০২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভাস্কর্য যুদ্ধে এগিয়ে এলো তুরস্ক!

ডেস্ক রিপোর্টঃ ভাস্কর্য বিতর্কের মধ্যে এমন একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুরো বিশ্বের মুসলমানদের সেনাপতি খ্যাত এরদোয়ানের দেশ তুরস্ক। আজ বুধবার বাংলাদেশের তথ্য মন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা উসমান তুরান সাংবাদিকদের বলেন

তুরস্কের আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এবং ঢাকার কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ে মোস্তফা কামাল আতাতুর্কের ভাস্কর্য নির্মাণ করবে তুরস্ক। দেশে চলমান ভাস্কর্য বিতর্কের মধ্যে এমন সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন তিনি।
তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা উসমান তুরান বলেন, ‘বন্ধুত্বপূর্ণ দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। আশা করি আমরা মুজিববর্ষের সমাপনী অনুষ্ঠানে যোগ দেব। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হচ্ছেন বাংলাদেশের প্রতীক আর কামাল আতাতুর্ক হচ্ছেন তুরস্কের প্রতীক তাই দুই দেশের মহান এই দুই নেতার ভাস্কর্য দুই দেশে স্থাপন করবো এ ব্যাপারে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এবং ঢাকার কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ে কামাল আতাতুর্কের ভাস্কর্য স্থাপিত হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির রাষ্ট্রদূত। তিনি আরো জানান যে এই সিদ্ধান্ত খুব শিগগির বাস্তবায়ন করা হবে।
তবে পর্যায়ক্রমে এই ভাষকর্য গুলো দুই দেশের আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ শহরে স্থাপন করা হবে।
বৈঠক শেষে বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, তুরস্কের রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একটি ভাষ্কর্য স্থাপন করবেন তারা এবং আমরা বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে তাদের আধুনিক তুস্কের প্রতিষ্ঠাতা কামাল আতাতুর্কের একটি ভাস্কর্য আমাদের ঢাকাতে স্থাপন করব এবং আমাদের আলোচনায় আরো সিদ্ধান্ত হয়েছে যে এর পরবর্তী সময়ে আমরা এই দুই নেতার ভাষকর্য দুই দেশের আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ শহরে স্থাপন করা যায় কিনা তা ভেবে দেখবো

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

ভাস্কর্য যুদ্ধে এগিয়ে এলো তুরস্ক!

আপডেট সময় ১০:০৩:১৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২ ডিসেম্বর ২০২০

ডেস্ক রিপোর্টঃ ভাস্কর্য বিতর্কের মধ্যে এমন একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুরো বিশ্বের মুসলমানদের সেনাপতি খ্যাত এরদোয়ানের দেশ তুরস্ক। আজ বুধবার বাংলাদেশের তথ্য মন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা উসমান তুরান সাংবাদিকদের বলেন

তুরস্কের আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এবং ঢাকার কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ে মোস্তফা কামাল আতাতুর্কের ভাস্কর্য নির্মাণ করবে তুরস্ক। দেশে চলমান ভাস্কর্য বিতর্কের মধ্যে এমন সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন তিনি।
তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা উসমান তুরান বলেন, ‘বন্ধুত্বপূর্ণ দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। আশা করি আমরা মুজিববর্ষের সমাপনী অনুষ্ঠানে যোগ দেব। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হচ্ছেন বাংলাদেশের প্রতীক আর কামাল আতাতুর্ক হচ্ছেন তুরস্কের প্রতীক তাই দুই দেশের মহান এই দুই নেতার ভাস্কর্য দুই দেশে স্থাপন করবো এ ব্যাপারে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এবং ঢাকার কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ে কামাল আতাতুর্কের ভাস্কর্য স্থাপিত হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির রাষ্ট্রদূত। তিনি আরো জানান যে এই সিদ্ধান্ত খুব শিগগির বাস্তবায়ন করা হবে।
তবে পর্যায়ক্রমে এই ভাষকর্য গুলো দুই দেশের আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ শহরে স্থাপন করা হবে।
বৈঠক শেষে বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, তুরস্কের রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একটি ভাষ্কর্য স্থাপন করবেন তারা এবং আমরা বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে তাদের আধুনিক তুস্কের প্রতিষ্ঠাতা কামাল আতাতুর্কের একটি ভাস্কর্য আমাদের ঢাকাতে স্থাপন করব এবং আমাদের আলোচনায় আরো সিদ্ধান্ত হয়েছে যে এর পরবর্তী সময়ে আমরা এই দুই নেতার ভাষকর্য দুই দেশের আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ শহরে স্থাপন করা যায় কিনা তা ভেবে দেখবো