ঢাকা ০১:০৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রতিমা বিসর্জনের মাধ্যমে দুর্গাপূজা সম্পন্ন।

বিশ্বনাথ প্রতিনিধিঃ ‘মারে ভাসাইয়া জলে, কি ধন লইয়া জাইমু ঘরে। ঘরে গিয়া মা বলিব কারে গো’ গানের তালে তালে সরকার নির্ধারিত সময় বিকেল ৫টার মধ্যে উপজেলার ২৬টি মন্ডপের প্রতিমা বিসর্জনের মাধ্যমে সুষ্ট, সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে সিলেটের বিশ্বনাথে শারদীয় দুর্গোৎসব সম্পন্ন হয়েছে। উপজেলা পরিষদের সামনে বাসিয়া নদীতে উপজেলার ২৬টি মন্ডপের মধ্যে ৩টি (জানাইয়া, নতুন বাজার ও পুরাণ বাজার) মন্ডপের প্রতিমা বিসর্জন করা হয়। সোমবার অক্টোবর মঙ্গলবার বিকেলে সরেজমিনে বিসর্জনস্থলে উপস্থিত থেকে উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও পূজা উদযাপন পরিষদের কর্মকর্তারা প্রতিমা বিসর্জন সরাসরি দেখেন। আর এখান থেকেই মনিটরিং করা হয় উপজেলার সকল মন্ডপের প্রতিমা বিসর্জন প্রক্রিয়া।
প্রতিমা বিজর্সনের সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা, উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি মানিক লাল দে, সাধারণ সম্পাদক সমরেন্দ্র বৈদ্য সমর, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত কুমার দাশ, উপজেলা জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের সভাপতি শংকর দাশ শংকু, সংগঠক অনাথ রাম বৈদ্য প্রমুখসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার ব্যক্তিবর্গ।
সুষ্ট, সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে সিলেটের বিশ্বনাথে শারদীয় দুর্গোৎসব সম্পন্ন হওয়ার জনপ্রতিনিধি, উপজেলা প্রশাসন, থানা প্রশাসন, রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক, সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ সমগ্র উপজেলাবাসীকে আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশ্বনাথ উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সুনীল কান্তি দে ও সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত কুমার দাশ।

ট্যাগস

প্রতিমা বিসর্জনের মাধ্যমে দুর্গাপূজা সম্পন্ন।

আপডেট সময় ০২:৪৬:২৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০

বিশ্বনাথ প্রতিনিধিঃ ‘মারে ভাসাইয়া জলে, কি ধন লইয়া জাইমু ঘরে। ঘরে গিয়া মা বলিব কারে গো’ গানের তালে তালে সরকার নির্ধারিত সময় বিকেল ৫টার মধ্যে উপজেলার ২৬টি মন্ডপের প্রতিমা বিসর্জনের মাধ্যমে সুষ্ট, সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে সিলেটের বিশ্বনাথে শারদীয় দুর্গোৎসব সম্পন্ন হয়েছে। উপজেলা পরিষদের সামনে বাসিয়া নদীতে উপজেলার ২৬টি মন্ডপের মধ্যে ৩টি (জানাইয়া, নতুন বাজার ও পুরাণ বাজার) মন্ডপের প্রতিমা বিসর্জন করা হয়। সোমবার অক্টোবর মঙ্গলবার বিকেলে সরেজমিনে বিসর্জনস্থলে উপস্থিত থেকে উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও পূজা উদযাপন পরিষদের কর্মকর্তারা প্রতিমা বিসর্জন সরাসরি দেখেন। আর এখান থেকেই মনিটরিং করা হয় উপজেলার সকল মন্ডপের প্রতিমা বিসর্জন প্রক্রিয়া।
প্রতিমা বিজর্সনের সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা, উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি মানিক লাল দে, সাধারণ সম্পাদক সমরেন্দ্র বৈদ্য সমর, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত কুমার দাশ, উপজেলা জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের সভাপতি শংকর দাশ শংকু, সংগঠক অনাথ রাম বৈদ্য প্রমুখসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার ব্যক্তিবর্গ।
সুষ্ট, সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে সিলেটের বিশ্বনাথে শারদীয় দুর্গোৎসব সম্পন্ন হওয়ার জনপ্রতিনিধি, উপজেলা প্রশাসন, থানা প্রশাসন, রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক, সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ সমগ্র উপজেলাবাসীকে আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশ্বনাথ উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সুনীল কান্তি দে ও সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত কুমার দাশ।