ঢাকা ১১:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিশু রবিউল হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে বিশ্বনাথে মানববন্ধন।

বিশ্বনাথ প্রতিনিধিঃ  মাদ্রাসা শিক্ষার্থী শিশু রবিউল হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবীতে বুধবার দুপুরে সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলা সদরের বাসিয়া সেতুর উপর এলাকাবাসীর ব্যানারে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানববন্ধনে খুনিদের গ্রেপ্তার, ফাঁসি চাই ইত্যাদি প্লেকার্ড, ফেস্টুন হাতে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ স্লোগান দিতে থাকেন। মানববন্ধানে নিহত শিশু রবিউলের পিতা আকবর আলী ও মাতা গুলবানু বেগম কান্নাজড়িত কন্ঠে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তাদের ছেলে হত্যার সঠিক বিচার চেয়েছেন।
এলাকাবাসীর মানববন্ধনে একাত্মতা পোষণ করে লতিফিয়া ইরশাদিয়া দাখিল মাদ্রাসার ছাত্র সংসদ, উপজেলা ট্রাক সমিতি, হিলফুল ফুজুল যুব সংঘ, সাতপাড়া সদরপুর হাফিজিয়া মাদ্রাসা, রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদের ৯নং ওয়ার্ড, সিলেট বিভাগীয় মানবাধিকার সমন্বয় ব্রাঞ্চসহ কয়েকটি সংগঠন।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, একটি গ্রাম্য শালিসে সত্য স্বাক্ষী দেয়ায় শিশু রবিউলকে ঘাড় মটকে, চোখ উপড়ে ফেলে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু গত ১১দিনে প্রধান অভিযুক্ত রয়েছে ধরাছোঁয়ার বাইরে। শিশু রবিউল হত্যাকান্ডের আসল রহস্য উদঘাটনের জন্য গ্রেপ্তারকৃত মাজেদাকে রিমান্ডে আনার জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানান বক্তারা। এছাড়া পলাতক দুই খুনি সাদিক ও কাদিরকে দ্রুত গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তি দিতে সিলেটের পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন বক্তারা। অচিরেই খুনিদের গ্রেপ্তার করা না হলে পরবর্তিতে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে কঠিন কর্মসূচী দেয়ার হুশিয়ারি দিয়েছেন এলাকাবাসী।
স্থানীয় বাসিন্দা এবং বিশ্বনাথ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সাম্যবাদী কবি সাইদুর রহমান সাইদের  সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহবায়ক আবদুস সালাম জুনেদের পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলমগীর, প্রবীন সাংবাদিক আবদুল আহাদ, শালীস ব্যক্তিত্ব অবিরণ চন্দ্র, সমাজ সেবক শফিকুর রহমান বাবুল, সাবেক মেম্বার আনিছুজ্জামান খান, উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক বশির আহমদ, উপজেলা জাতীয় পার্টির সাবেক যুগ্ম আহবায়ক আবদুল হান্নান, ফিরোজ আলী, লতিফিয়া ইরশাদিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা ইছহাক হোসাইন, উপজেলা যুবলীগ নেতা আবুল কাহার, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিক, সংগঠক সিরাজ মিয়া, রামপাশা নতুন বাজারের সাধারণ সম্পাদক সাদ আলম, রামপাশা ইউনিয়ন তালামীযের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মিসবাউল হক।

প্রসঙ্গত, গত ১৩ অক্টোবর সকালে সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের রহমাননগর (নওধার) গ্রামের কৃষক আকবর পুত্র ও মাদ্রাসা ছাত্র রবিউল ইসলাম (১২) লাশ ওই গ্রামের পাশের একটি জমি থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। এর আগের দিন সকালে বাড়ি থেকে বেরিয়ে গিয়ে নিখোঁজ হয় সে। এ ঘটনায় পার্শ্ববর্তী করপাড়া গ্রামের সাদিকুর রহমান, আবদুল কাদির ও কাদিরের স্ত্রী মাজেদা বেগমকে অভিযুক্ত করে বিশ্বনাথ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন রবিউলের পিতা আকবর আলী। মামলা দায়েরের পরপরই মাজেদা বেগমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

শিশু রবিউল হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে বিশ্বনাথে মানববন্ধন।

আপডেট সময় ০২:৫৫:৫২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০

বিশ্বনাথ প্রতিনিধিঃ  মাদ্রাসা শিক্ষার্থী শিশু রবিউল হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবীতে বুধবার দুপুরে সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলা সদরের বাসিয়া সেতুর উপর এলাকাবাসীর ব্যানারে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানববন্ধনে খুনিদের গ্রেপ্তার, ফাঁসি চাই ইত্যাদি প্লেকার্ড, ফেস্টুন হাতে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ স্লোগান দিতে থাকেন। মানববন্ধানে নিহত শিশু রবিউলের পিতা আকবর আলী ও মাতা গুলবানু বেগম কান্নাজড়িত কন্ঠে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তাদের ছেলে হত্যার সঠিক বিচার চেয়েছেন।
এলাকাবাসীর মানববন্ধনে একাত্মতা পোষণ করে লতিফিয়া ইরশাদিয়া দাখিল মাদ্রাসার ছাত্র সংসদ, উপজেলা ট্রাক সমিতি, হিলফুল ফুজুল যুব সংঘ, সাতপাড়া সদরপুর হাফিজিয়া মাদ্রাসা, রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদের ৯নং ওয়ার্ড, সিলেট বিভাগীয় মানবাধিকার সমন্বয় ব্রাঞ্চসহ কয়েকটি সংগঠন।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, একটি গ্রাম্য শালিসে সত্য স্বাক্ষী দেয়ায় শিশু রবিউলকে ঘাড় মটকে, চোখ উপড়ে ফেলে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু গত ১১দিনে প্রধান অভিযুক্ত রয়েছে ধরাছোঁয়ার বাইরে। শিশু রবিউল হত্যাকান্ডের আসল রহস্য উদঘাটনের জন্য গ্রেপ্তারকৃত মাজেদাকে রিমান্ডে আনার জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানান বক্তারা। এছাড়া পলাতক দুই খুনি সাদিক ও কাদিরকে দ্রুত গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তি দিতে সিলেটের পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন বক্তারা। অচিরেই খুনিদের গ্রেপ্তার করা না হলে পরবর্তিতে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে কঠিন কর্মসূচী দেয়ার হুশিয়ারি দিয়েছেন এলাকাবাসী।
স্থানীয় বাসিন্দা এবং বিশ্বনাথ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সাম্যবাদী কবি সাইদুর রহমান সাইদের  সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহবায়ক আবদুস সালাম জুনেদের পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলমগীর, প্রবীন সাংবাদিক আবদুল আহাদ, শালীস ব্যক্তিত্ব অবিরণ চন্দ্র, সমাজ সেবক শফিকুর রহমান বাবুল, সাবেক মেম্বার আনিছুজ্জামান খান, উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক বশির আহমদ, উপজেলা জাতীয় পার্টির সাবেক যুগ্ম আহবায়ক আবদুল হান্নান, ফিরোজ আলী, লতিফিয়া ইরশাদিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা ইছহাক হোসাইন, উপজেলা যুবলীগ নেতা আবুল কাহার, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিক, সংগঠক সিরাজ মিয়া, রামপাশা নতুন বাজারের সাধারণ সম্পাদক সাদ আলম, রামপাশা ইউনিয়ন তালামীযের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মিসবাউল হক।

প্রসঙ্গত, গত ১৩ অক্টোবর সকালে সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের রহমাননগর (নওধার) গ্রামের কৃষক আকবর পুত্র ও মাদ্রাসা ছাত্র রবিউল ইসলাম (১২) লাশ ওই গ্রামের পাশের একটি জমি থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। এর আগের দিন সকালে বাড়ি থেকে বেরিয়ে গিয়ে নিখোঁজ হয় সে। এ ঘটনায় পার্শ্ববর্তী করপাড়া গ্রামের সাদিকুর রহমান, আবদুল কাদির ও কাদিরের স্ত্রী মাজেদা বেগমকে অভিযুক্ত করে বিশ্বনাথ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন রবিউলের পিতা আকবর আলী। মামলা দায়েরের পরপরই মাজেদা বেগমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।