ঢাকা ০৬:৩৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিশ্বনাথে দুটি মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে তিনজন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি।

বিশ্বনাথ প্রতিনিধিঃ সিলেটের বিশ্বনাথে সোমবার রাতে উপজেলা সদরের নতুন বাজার জনতা ব্যাংকের সামনে সড়ক দূর্ঘটনায় তিন মটরসাইকেল আরোহী গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন, উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের বিলপাড় দ্বীপবন্দ গ্রামের মুন্সিবাড়ির মৃত আনজব আলীর পুত্র প্রবাসী রফিজ আলী (৪০), একই গ্রামের মৃত মদরিছ আলীর পুত্র মুজিবুর রহমান (৩৫) ও মৃত আব্দুস শহীদের পুত্র লোকমান হোসেন (৩০)। গুরুতর আহত অবস্থায় রফিজ আলীকে সিলেট এমএজি ওসমানী কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, সোমবার রাত ৮টায় উপজেলা সদর থেকে রামপাশা রোডে বাড়ির উদ্দেশ্যে মটরসাইকেলে করে রওয়ানা দেন তারা। হঠাৎ জনতা ব্যাংকের সামনে রাস্তার পাশ থেকে আরেকটি মটরসাইকেল তাদের ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে তারা তিনজনই পড়ে গিয়ে আহত হন। স্থানীয় ব্যবসায়ীরা তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত রফিজ আলী সিলেট ওসমানী হাসপাতালে চিকিসাধিন অবস্থায় আছেন। আর বাকি দুইজন চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আহত রফিজ আলীর ভাতিজা আলী হোসেন।

ট্যাগস

বিশ্বনাথে দুটি মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে তিনজন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি।

আপডেট সময় ০২:৪২:০৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০

বিশ্বনাথ প্রতিনিধিঃ সিলেটের বিশ্বনাথে সোমবার রাতে উপজেলা সদরের নতুন বাজার জনতা ব্যাংকের সামনে সড়ক দূর্ঘটনায় তিন মটরসাইকেল আরোহী গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন, উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের বিলপাড় দ্বীপবন্দ গ্রামের মুন্সিবাড়ির মৃত আনজব আলীর পুত্র প্রবাসী রফিজ আলী (৪০), একই গ্রামের মৃত মদরিছ আলীর পুত্র মুজিবুর রহমান (৩৫) ও মৃত আব্দুস শহীদের পুত্র লোকমান হোসেন (৩০)। গুরুতর আহত অবস্থায় রফিজ আলীকে সিলেট এমএজি ওসমানী কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, সোমবার রাত ৮টায় উপজেলা সদর থেকে রামপাশা রোডে বাড়ির উদ্দেশ্যে মটরসাইকেলে করে রওয়ানা দেন তারা। হঠাৎ জনতা ব্যাংকের সামনে রাস্তার পাশ থেকে আরেকটি মটরসাইকেল তাদের ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে তারা তিনজনই পড়ে গিয়ে আহত হন। স্থানীয় ব্যবসায়ীরা তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত রফিজ আলী সিলেট ওসমানী হাসপাতালে চিকিসাধিন অবস্থায় আছেন। আর বাকি দুইজন চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আহত রফিজ আলীর ভাতিজা আলী হোসেন।