ঢাকা ০৪:৫৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ২৮ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সাংসদ মোকাব্বির খাঁনের গাড়িতে হামলায় বিশ্বনাথ আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের নামে মামলা।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ গণফোরামের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য সিলেট দুই বিশ্বনাথ উসমানী নগর আসনের সাংসদ মোকাব্বির খাঁনের গাড়িতে হামলায় বিশ্বনাথ উপজেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের কয়েকজনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে বিশ্বনাথ থানায়।
সাংসদ মোকাব্বির খাঁনের এপিএস অসিত রঞ্জন দেব বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে এই মামলাটি দায়ের করেন। মামলা নং ১০। উক্ত এই মামলায় প্রধান আসামী করা হয়েছে বিশ্বনাথ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও বিশ্বনাথ বনিক সমিতির সভাপতি শামীম আহমেদ কে। মামলার অন্য আসামীরা হলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, শ্রমিক লীগ নেতা জুনাব আলী, যুবলীগ নেতা কামরুজ্জামান সেবুল ও দৌলতপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি দবির মিয়া তবে দবির মিয়াকে দৌলতপুর থেকে ইতিমধ্যে পুলিশ গ্রেফতার করতে পারলেও মামলার প্রধান ও প্রথম সারির আসামীদের থানা সদরের কাছ থেকে এখনো গ্রেফতার করতে পারেননি পুলিশ। এ নিয়ে এই মামলার ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে বলে জানান ঘটনার কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী।
উক্ত এই মামলায় নামবিহীন আরো ২০/২৫ জনকে আসামী করা হয়েছে।
উল্লেখ্য গত সোমবার বিশ্বনাথ উপজেলা প্রশাষন কতৃক আয়োজিত আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় যোগদানের পথে থানার অতি নিকটেই এবং পুলিশ প্রশাসনের সামনে সাংসদ মোকাব্বির খাঁনের গাড়িতে সরকার দলীও কিছু নেতাকর্মীরা এই হামলা করেন। তবে পরে আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব পংকি খান জয়বাংলা স্লোগান দিয়ে যারা একজন সম্মানী মানুষকে এভাবে অপমানিত করে হামলা করেছে তাদেরকে যত দ্রুত সম্ভব গ্রেফতার করতে প্রশাষনের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

সাংসদ মোকাব্বির খাঁনের গাড়িতে হামলায় বিশ্বনাথ আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের নামে মামলা।

আপডেট সময় ০৪:৪৫:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ অগাস্ট ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ গণফোরামের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য সিলেট দুই বিশ্বনাথ উসমানী নগর আসনের সাংসদ মোকাব্বির খাঁনের গাড়িতে হামলায় বিশ্বনাথ উপজেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের কয়েকজনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে বিশ্বনাথ থানায়।
সাংসদ মোকাব্বির খাঁনের এপিএস অসিত রঞ্জন দেব বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে এই মামলাটি দায়ের করেন। মামলা নং ১০। উক্ত এই মামলায় প্রধান আসামী করা হয়েছে বিশ্বনাথ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও বিশ্বনাথ বনিক সমিতির সভাপতি শামীম আহমেদ কে। মামলার অন্য আসামীরা হলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, শ্রমিক লীগ নেতা জুনাব আলী, যুবলীগ নেতা কামরুজ্জামান সেবুল ও দৌলতপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি দবির মিয়া তবে দবির মিয়াকে দৌলতপুর থেকে ইতিমধ্যে পুলিশ গ্রেফতার করতে পারলেও মামলার প্রধান ও প্রথম সারির আসামীদের থানা সদরের কাছ থেকে এখনো গ্রেফতার করতে পারেননি পুলিশ। এ নিয়ে এই মামলার ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে বলে জানান ঘটনার কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী।
উক্ত এই মামলায় নামবিহীন আরো ২০/২৫ জনকে আসামী করা হয়েছে।
উল্লেখ্য গত সোমবার বিশ্বনাথ উপজেলা প্রশাষন কতৃক আয়োজিত আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় যোগদানের পথে থানার অতি নিকটেই এবং পুলিশ প্রশাসনের সামনে সাংসদ মোকাব্বির খাঁনের গাড়িতে সরকার দলীও কিছু নেতাকর্মীরা এই হামলা করেন। তবে পরে আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব পংকি খান জয়বাংলা স্লোগান দিয়ে যারা একজন সম্মানী মানুষকে এভাবে অপমানিত করে হামলা করেছে তাদেরকে যত দ্রুত সম্ভব গ্রেফতার করতে প্রশাষনের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে।