ঢাকা ০৩:৩৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

৪৬১ জন প্রতিবন্ধীদের কাছে পৌঁছালো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সেই মানবিক সহায়তা।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানবিক সহায়তা আজ সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার আমতৈল গ্রামের ৪৬১ প্রতিবন্ধি জনগোষ্টির মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) দুপুরে সিলেট জেলা প্রশাসকের আয়োজনে বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে প্রতিবন্ধী ও তার পরিবারে প্রধানমন্ত্রীর এ ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার বিতরণীতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট বিভাগীয় কমিশনার মশিউর রহমান এনডিসি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেছেন- নিরাপদ মাতৃত্ব এবং সন্তান প্রসব করালে প্রতিবন্ধি হওয়ার অনেকটা ঝুকি কম থাকে। একজন দক্ষ দাই দিয়ে সন্তান প্রসব করাতে হবে। যদি অদক্ষ দাইর মাধ্যমে সন্তান প্রসব করানো হয় তাহলে আগত শিশুর মাথায়, পা বা শরীরে যে কোন অঙ্গে চাপ লেগে এধরণের সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। যাদের ব্রেইনে আঘাত লাগে তাদের সমস্যা হয়।
তিনি আরো বলেন প্রতিবন্ধি শিশুকে অবহেলা নয়, বরং তাদের মেধা বিকাশে শিক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে। শিক্ষা নিতে পারবে এমন প্রতিবন্ধী শিশুকে কোন শিক্ষক স্কুলে ভর্তি না করেন তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ারও বিধান রয়েছে।
সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম বলেন, প্রতিবন্ধিদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করণের জোর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। জেলার সকল কমিউনিটি ক্লিনিকের তালিকা করে ওই ক্লিনিক থেকে সবাইকে পূর্নস্বাস্থ্যসেবা প্রদান করার নিদের্শ দিয়েছেন। তিনি বলেন, এক এলাকায় ৪৬১জন প্রতিবন্ধি আছেন গণমাধ্যমগুলোতে সংবাদ প্রচারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে আসে। তিনিই এইসব প্রতিবন্ধিদের খোজখবর নিতে বলেন এবং ঈদ উপহার দেওয়ার নির্দেশ দেন। জেলা প্রশাসক আরও বলেন, শুধু রামপাশা ইউনিয়নের নয়, বিশ্বনাথ উপজেলায় সকল প্রতিবন্ধিদের কার্ড করে প্রতিবন্ধি সেবার আওতায় আনা হবে। তিনি সাংবাদিকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, সাংবাদিকদের লেখনিতেই আজ প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেল রামপাশার ৪৬১জন প্রতিবন্ধী।
প্রত্যেককে নগদ ২হাজার ৫শ টাকা, তাদের পরিবারকে ১টি লুঙ্গি ও ১টি শাড়ি, ১০ কেজি চাল, ১ কেজি মশুর ডাল, ১কেজি লবণ, ১কেজি চিড়া, ১কেজি চিনি, ১লিটার সয়াবিন তেল ও ৫০০ গ্রাম নুডুলস করে ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডে ৪৬১জন প্রতিবন্ধীর মাঝে ১৬ লাখ ১৩ হাজার ৫০০ টাকার উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়।
জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল হকের সভাপতিত্বে, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো: কামরুজ্জামান ও রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাভোকেট আলমগীর’র যৌত পরিচালনায় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান, বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এসএম নুনু মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব পংকি খান।
এসময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা অফিসার মহিউদ্দিন আহমদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমির আলী চেয়ারম্যাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আজিজ সুমন, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মতিন, প্রচার সম্পাদক শ্রী নিখিল পাল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান লিলু, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক শামীম আহমদ, সদস্য আশিক আলী, বিশ^নাথ প্রতিবন্ধি সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রের কনসালট্যান্ট ডা. সুজিত বিশ্বাস, প্রতিবন্ধি বিষয়ক কর্মকর্তা মো. মনিরুল হক। যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আলতাব হোসেন, যুবলীগ নেতা দবির মিয়া, জেলা ছাত্রলীগ নেতা শাহরিয়ার আলম সামাদ, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম-আহবায়ক মুহিবুর রহমান সুইটসহ উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এছাড়াও জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের উর্দ্বতন কর্মকর্তা এবং কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, সিলেটের সামগ্রিক হারের তুলনায় দ্বিগুণেরও বেশি প্রতিবন্ধী রয়েছেন রামপাশা ইউনিয়নে। এর মধ্যে সিংহভাগই আমতৈল গ্রামের। এ নিয়ে জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিকগুলোতে অনেক সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। মানবিক এ বিষয়টি বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা তাঁর বড় বোন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টিতে আনেন। তিনি তাৎক্ষণিক বিষয়টি আমলে নিয়ে শুধুমাত্র রামপাশা ইউনিয়নের ৪৬১ জন প্রতিবন্ধীদের জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে এ উপহার সামগ্রী বিতরণ হয়।

ট্যাগস

৪৬১ জন প্রতিবন্ধীদের কাছে পৌঁছালো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সেই মানবিক সহায়তা।

আপডেট সময় ০৩:১৫:৩৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ জুলাই ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানবিক সহায়তা আজ সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার আমতৈল গ্রামের ৪৬১ প্রতিবন্ধি জনগোষ্টির মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) দুপুরে সিলেট জেলা প্রশাসকের আয়োজনে বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে প্রতিবন্ধী ও তার পরিবারে প্রধানমন্ত্রীর এ ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার বিতরণীতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট বিভাগীয় কমিশনার মশিউর রহমান এনডিসি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেছেন- নিরাপদ মাতৃত্ব এবং সন্তান প্রসব করালে প্রতিবন্ধি হওয়ার অনেকটা ঝুকি কম থাকে। একজন দক্ষ দাই দিয়ে সন্তান প্রসব করাতে হবে। যদি অদক্ষ দাইর মাধ্যমে সন্তান প্রসব করানো হয় তাহলে আগত শিশুর মাথায়, পা বা শরীরে যে কোন অঙ্গে চাপ লেগে এধরণের সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। যাদের ব্রেইনে আঘাত লাগে তাদের সমস্যা হয়।
তিনি আরো বলেন প্রতিবন্ধি শিশুকে অবহেলা নয়, বরং তাদের মেধা বিকাশে শিক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে। শিক্ষা নিতে পারবে এমন প্রতিবন্ধী শিশুকে কোন শিক্ষক স্কুলে ভর্তি না করেন তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ারও বিধান রয়েছে।
সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম বলেন, প্রতিবন্ধিদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করণের জোর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। জেলার সকল কমিউনিটি ক্লিনিকের তালিকা করে ওই ক্লিনিক থেকে সবাইকে পূর্নস্বাস্থ্যসেবা প্রদান করার নিদের্শ দিয়েছেন। তিনি বলেন, এক এলাকায় ৪৬১জন প্রতিবন্ধি আছেন গণমাধ্যমগুলোতে সংবাদ প্রচারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে আসে। তিনিই এইসব প্রতিবন্ধিদের খোজখবর নিতে বলেন এবং ঈদ উপহার দেওয়ার নির্দেশ দেন। জেলা প্রশাসক আরও বলেন, শুধু রামপাশা ইউনিয়নের নয়, বিশ্বনাথ উপজেলায় সকল প্রতিবন্ধিদের কার্ড করে প্রতিবন্ধি সেবার আওতায় আনা হবে। তিনি সাংবাদিকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, সাংবাদিকদের লেখনিতেই আজ প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেল রামপাশার ৪৬১জন প্রতিবন্ধী।
প্রত্যেককে নগদ ২হাজার ৫শ টাকা, তাদের পরিবারকে ১টি লুঙ্গি ও ১টি শাড়ি, ১০ কেজি চাল, ১ কেজি মশুর ডাল, ১কেজি লবণ, ১কেজি চিড়া, ১কেজি চিনি, ১লিটার সয়াবিন তেল ও ৫০০ গ্রাম নুডুলস করে ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডে ৪৬১জন প্রতিবন্ধীর মাঝে ১৬ লাখ ১৩ হাজার ৫০০ টাকার উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়।
জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল হকের সভাপতিত্বে, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো: কামরুজ্জামান ও রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাভোকেট আলমগীর’র যৌত পরিচালনায় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান, বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এসএম নুনু মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব পংকি খান।
এসময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা অফিসার মহিউদ্দিন আহমদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমির আলী চেয়ারম্যাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আজিজ সুমন, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মতিন, প্রচার সম্পাদক শ্রী নিখিল পাল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান লিলু, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক শামীম আহমদ, সদস্য আশিক আলী, বিশ^নাথ প্রতিবন্ধি সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রের কনসালট্যান্ট ডা. সুজিত বিশ্বাস, প্রতিবন্ধি বিষয়ক কর্মকর্তা মো. মনিরুল হক। যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আলতাব হোসেন, যুবলীগ নেতা দবির মিয়া, জেলা ছাত্রলীগ নেতা শাহরিয়ার আলম সামাদ, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম-আহবায়ক মুহিবুর রহমান সুইটসহ উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এছাড়াও জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের উর্দ্বতন কর্মকর্তা এবং কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, সিলেটের সামগ্রিক হারের তুলনায় দ্বিগুণেরও বেশি প্রতিবন্ধী রয়েছেন রামপাশা ইউনিয়নে। এর মধ্যে সিংহভাগই আমতৈল গ্রামের। এ নিয়ে জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিকগুলোতে অনেক সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। মানবিক এ বিষয়টি বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা তাঁর বড় বোন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টিতে আনেন। তিনি তাৎক্ষণিক বিষয়টি আমলে নিয়ে শুধুমাত্র রামপাশা ইউনিয়নের ৪৬১ জন প্রতিবন্ধীদের জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে এ উপহার সামগ্রী বিতরণ হয়।