ঢাকা ০৯:৫৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাজ্যের লুটনে মেয়র ও কাউন্সিলর এর বিরুদ্ধে লকডাউন আইন ভঙ্গের অভিযোগ।

ডেস্ক নিউজঃ  গত মঙ্গলবার ২১ জুলাই বেডফোর্ড শায়ারে পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত লুটনের মেয়র তাহির মালিক এবং স্থানীয় দুই কাউন্সিলর ওয়াহেদ আকবর ও আসিফ মাসুদ সহ আরো প্রায় নয়জন অতিথি নিয়ে একটি গার্ডেন পার্টিতে মিলিত হয়ে তারা লকডাউন আইন ভঙ্গ করেছেন বলে স্কাই নিউজে উঠে এসেছে।

পার্টিতে থাকা অতিথিরা সেই ছবি ফেইসবুকে আপলোড দিলে সেখানে সমালোচনার ঝড় উঠে ছবিতে দেখা যায় তারা সমাজিক দূরত্ব এবং ফেইস মাস্ক ব্যবহার না করেই তারা পার্টিতে উপস্থিত হয়েছিলেন। এবং শুধুমাত্র মেয়রের থুতনিতেই ফেইস মাস্ক ঝুলছিলো।
গত পহেলা জুন থেকে লক ডাউন আইন শিথিল করে সরকার গার্ডেনে সর্বোচ্চ ছয় জন অতিথি দুই মিটার দূরত্ব রেখে অথবা ফেইস মাস্ক সহ এক মিটার দূরত্বে একত্রিত হওয়ার আইন চালু করে। কিন্তু তারা কাউন্সিলের কর্মকর্তা হয়েও এই আইন ভঙ্গ করেন।
মেয়র সহ অপর দুই কাউন্সিলর তাদের বক্তব্যে বলেছেন আমরা জানতে পারি সেখানে বড় কোনো পার্টি হবেনা তাই আমরা সেখানে উপস্থিত হয়েছিলাম কিন্তু উপস্থিত হওয়ার পর যখন বুজতে পারি সেখানে অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু অতিথি চলে আসেন তখন আমাদের উচিৎ ছিলো পার্টি ত্যাগ করা আমরা তা না করায় আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি।
এ বিষয়ে একটি অভিযোগ লুটন ব্যারা কাউন্সিলে উত্থাপন করা হয়েছে এবং সেটি তদন্ত করা হচ্ছে বলে উল্লেখ করা হয়।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

যুক্তরাজ্যের লুটনে মেয়র ও কাউন্সিলর এর বিরুদ্ধে লকডাউন আইন ভঙ্গের অভিযোগ।

আপডেট সময় ০৩:৪৮:০৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ জুলাই ২০২০

ডেস্ক নিউজঃ  গত মঙ্গলবার ২১ জুলাই বেডফোর্ড শায়ারে পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত লুটনের মেয়র তাহির মালিক এবং স্থানীয় দুই কাউন্সিলর ওয়াহেদ আকবর ও আসিফ মাসুদ সহ আরো প্রায় নয়জন অতিথি নিয়ে একটি গার্ডেন পার্টিতে মিলিত হয়ে তারা লকডাউন আইন ভঙ্গ করেছেন বলে স্কাই নিউজে উঠে এসেছে।

পার্টিতে থাকা অতিথিরা সেই ছবি ফেইসবুকে আপলোড দিলে সেখানে সমালোচনার ঝড় উঠে ছবিতে দেখা যায় তারা সমাজিক দূরত্ব এবং ফেইস মাস্ক ব্যবহার না করেই তারা পার্টিতে উপস্থিত হয়েছিলেন। এবং শুধুমাত্র মেয়রের থুতনিতেই ফেইস মাস্ক ঝুলছিলো।
গত পহেলা জুন থেকে লক ডাউন আইন শিথিল করে সরকার গার্ডেনে সর্বোচ্চ ছয় জন অতিথি দুই মিটার দূরত্ব রেখে অথবা ফেইস মাস্ক সহ এক মিটার দূরত্বে একত্রিত হওয়ার আইন চালু করে। কিন্তু তারা কাউন্সিলের কর্মকর্তা হয়েও এই আইন ভঙ্গ করেন।
মেয়র সহ অপর দুই কাউন্সিলর তাদের বক্তব্যে বলেছেন আমরা জানতে পারি সেখানে বড় কোনো পার্টি হবেনা তাই আমরা সেখানে উপস্থিত হয়েছিলাম কিন্তু উপস্থিত হওয়ার পর যখন বুজতে পারি সেখানে অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু অতিথি চলে আসেন তখন আমাদের উচিৎ ছিলো পার্টি ত্যাগ করা আমরা তা না করায় আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি।
এ বিষয়ে একটি অভিযোগ লুটন ব্যারা কাউন্সিলে উত্থাপন করা হয়েছে এবং সেটি তদন্ত করা হচ্ছে বলে উল্লেখ করা হয়।