ঢাকা ১২:৩৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নব্বই লক্ষ টাকার ইয়াবা সহ দেশের শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী সিলেটের বিশ্বনাথ থেকে গ্রেফতার।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বাংলাদেশ পুলিশ হেড কোয়ার্টার্স ঢাকা এর গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার শিমুলতলা গ্রামে অভিযান চালিয়ে প্রায় ৩০ হাজার পিচ ইয়াবাসহ দেশের শীর্ষস্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী খালেদকে গ্রেপ্তার করেছে সিলেট জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম।
গত বুধবার রাত ১১টার দিকে সিলেট জেলা গোয়েন্দা বিভাগ দক্ষিণ এর অফিসার ইনচার্জ আশীষ কুমার মৈত্র বিশ্বনাথ উপজেলার শিমূলতলা গ্রামে মাদক সম্রাট খালেদের বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করেন এবং সেখান থেকে খালেদকে গ্রেপ্তার করে তার সাথে থাকা ৩০ হাজার পিচ ইয়াবা উদ্ধার করেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সিলেট জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এর মাধ্যমে এই তথ্য জানান। প্রেস ব্রিফিংয়ে বলা হয় উদ্ধারকৃত ৩০ হাজার পিচ ইয়াবার মূল্য আনুমানিক ৯০ লক্ষ টাকা হবে।
পুলিশ সুপার জানান সিলেটের এই মাদক ব্যবসায়ী মো.খালেদ মিয়ার সাথে দেশের শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্ক রয়েছে আর সেই সুবাদে সে এতবড় চালান নিয়ে এসেছে। পুলিশের হেড কোয়ার্টার্স ঢাকার গোয়েন্দা শাখা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন যে মাদকের বড় একটি চালান সিলেটে এসেছে সেই খবর পাওয়ার সাথে সাথে গোয়েন্দা বিভাগ সিলেটের এসপি ফরিদ উদ্দিনকে বিষয়টি জানান। এসপির নির্দেশে ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. লুৎফুর রহমান এর সহযোগিতায় খালেদের বাড়িতে এই অভিযান চালানো হয় তবে কৌশলে খালেদ পুলিশের অভিযানের টের পেয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায় পরে গোয়েন্দা পুলিশ তাকে ধাওয়া করে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। তার দেওয়া তথ্য মতে বসত ঘরের আলমিরার ভেতর থেকে প্যাকেটে মুড়ানো অবস্থায় ৩০ হাজার পিছ ইয়াবা উদ্ধার করা হয় এর সাথে ইয়াবা বিক্রয়ের ২৯ হাজার টাকা ও উদ্ধার করেন পুলিশ।
পরে মাদকের এই সম্রাট খালেদের দেয়া তথ্য মতে বিশ্বনাথ পুরানবাজারস্থ আল হেরা শপিং সিটির পাকিং এরিয়া থেকে ইয়াবা বিক্রির কাজে ব্যবহৃত রেজিষ্ট্রেশনবিহীন একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করে গোয়েন্দা পুলিশ।
সিলেট বিভাগের সবচেয়ে বড় এই মাদক সম্রাট খালেদ মিয়া বিশ্বনাথ উপজেলার ৩ নং অলংকারী ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড শিমূলতলা গ্রামের মৃত ফজর আলীর পুত্র। গতকাল বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ প্রদান করেন।

ট্যাগস

নব্বই লক্ষ টাকার ইয়াবা সহ দেশের শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী সিলেটের বিশ্বনাথ থেকে গ্রেফতার।

আপডেট সময় ০৫:১১:২৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ জুলাই ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বাংলাদেশ পুলিশ হেড কোয়ার্টার্স ঢাকা এর গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার শিমুলতলা গ্রামে অভিযান চালিয়ে প্রায় ৩০ হাজার পিচ ইয়াবাসহ দেশের শীর্ষস্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী খালেদকে গ্রেপ্তার করেছে সিলেট জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম।
গত বুধবার রাত ১১টার দিকে সিলেট জেলা গোয়েন্দা বিভাগ দক্ষিণ এর অফিসার ইনচার্জ আশীষ কুমার মৈত্র বিশ্বনাথ উপজেলার শিমূলতলা গ্রামে মাদক সম্রাট খালেদের বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করেন এবং সেখান থেকে খালেদকে গ্রেপ্তার করে তার সাথে থাকা ৩০ হাজার পিচ ইয়াবা উদ্ধার করেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সিলেট জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এর মাধ্যমে এই তথ্য জানান। প্রেস ব্রিফিংয়ে বলা হয় উদ্ধারকৃত ৩০ হাজার পিচ ইয়াবার মূল্য আনুমানিক ৯০ লক্ষ টাকা হবে।
পুলিশ সুপার জানান সিলেটের এই মাদক ব্যবসায়ী মো.খালেদ মিয়ার সাথে দেশের শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্ক রয়েছে আর সেই সুবাদে সে এতবড় চালান নিয়ে এসেছে। পুলিশের হেড কোয়ার্টার্স ঢাকার গোয়েন্দা শাখা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন যে মাদকের বড় একটি চালান সিলেটে এসেছে সেই খবর পাওয়ার সাথে সাথে গোয়েন্দা বিভাগ সিলেটের এসপি ফরিদ উদ্দিনকে বিষয়টি জানান। এসপির নির্দেশে ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. লুৎফুর রহমান এর সহযোগিতায় খালেদের বাড়িতে এই অভিযান চালানো হয় তবে কৌশলে খালেদ পুলিশের অভিযানের টের পেয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায় পরে গোয়েন্দা পুলিশ তাকে ধাওয়া করে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। তার দেওয়া তথ্য মতে বসত ঘরের আলমিরার ভেতর থেকে প্যাকেটে মুড়ানো অবস্থায় ৩০ হাজার পিছ ইয়াবা উদ্ধার করা হয় এর সাথে ইয়াবা বিক্রয়ের ২৯ হাজার টাকা ও উদ্ধার করেন পুলিশ।
পরে মাদকের এই সম্রাট খালেদের দেয়া তথ্য মতে বিশ্বনাথ পুরানবাজারস্থ আল হেরা শপিং সিটির পাকিং এরিয়া থেকে ইয়াবা বিক্রির কাজে ব্যবহৃত রেজিষ্ট্রেশনবিহীন একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করে গোয়েন্দা পুলিশ।
সিলেট বিভাগের সবচেয়ে বড় এই মাদক সম্রাট খালেদ মিয়া বিশ্বনাথ উপজেলার ৩ নং অলংকারী ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড শিমূলতলা গ্রামের মৃত ফজর আলীর পুত্র। গতকাল বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ প্রদান করেন।