ঢাকা ১১:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর ২০২৩, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাজ্যে ম্যাকডোনাল্ডসের প্রায় সাতশো টি রেষ্টুরেন্ট খুলে দিচ্ছে বসে খাবার জন্য।

ডেস্ক নিউজঃ ভাতে মাছে বাঙালি! আর ম্যাকডোনাল্ডসে লন্ডনি!
বাঙালি যেমন ভাত-মাছ ছাড়া তৃপ্তি হীন তেমনি ম্যাকডোনাল্ডস হীন বৃটিশরা ও স্বাদ হীন।
বৃটেনের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফাস্টফুড রেষ্টুরেন্ট ম্যাকডোনাল্ডে আজ বুধবার থেকে বসে খেতে পারবেন ম্যাক ফুড ভক্তরা।
ম্যাকডোনাল্ড কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে দেশের প্রায় সাতশো টি রেষ্টুরেন্ট প্রস্তুত তাদের কাস্টমারদের সার্ভিসের জন্য তবে তারা শুধু টেবিল সার্ভিস সেবা পাবেন। সরকারের স্বাস্থ্য বিধি মেনে নির্দিষ্ট সংখ্যক কাস্টমার বসে খেতে পারবেন তাদের নির্দিষ্ট টেবিলে।
ম্যাকডোনাল্ডের প্রতিটি কাস্টমার রেষ্টুরেন্টে পৌঁছেই হেন্ড সেনিটাইজ করতে হবে এবং স্বাস্থ্য নির্দেশনা মানতে হবে।
ম্যাকডোনাল্ড জানিয়েছে কাস্টমাররা তাদের স্থানীয় রেষ্টুরেন্টের বিভিন্ন আপডেট জানতে পারবেন “ম্যাকডোনাল্ড রেষ্টুরেন্ট লোকেটর” ব্যবহার করে।
গত কয়েক সপ্তাহ ধরে রেষ্টুরেন্ট টি “ড্রাইভ থ্রো” এবং ডেলিভারি সার্ভিস চালু করার পর তাদের প্রতিটি ব্রাঞ্চে দীর্ঘ লম্বা লাইন লেগেই রয়েছে। অনেকেই আবার দীর্ঘক্ষনের লাইন এড়াতে ডাবল অর্থ দিয়ে ডেলিভারি সার্ভিস নিচ্ছেন।
উল্লেখ্য করোনা ভাইরাসের কারনে মার্চ মাসের শেষ দিক থেকে বৃটেনের জনপ্রিয় এই রেষ্টুরেন্ট টি বন্ধ ছিলো।

ট্যাগস

যুক্তরাজ্যে ম্যাকডোনাল্ডসের প্রায় সাতশো টি রেষ্টুরেন্ট খুলে দিচ্ছে বসে খাবার জন্য।

আপডেট সময় ০৩:৩০:২০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ জুলাই ২০২০

ডেস্ক নিউজঃ ভাতে মাছে বাঙালি! আর ম্যাকডোনাল্ডসে লন্ডনি!
বাঙালি যেমন ভাত-মাছ ছাড়া তৃপ্তি হীন তেমনি ম্যাকডোনাল্ডস হীন বৃটিশরা ও স্বাদ হীন।
বৃটেনের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফাস্টফুড রেষ্টুরেন্ট ম্যাকডোনাল্ডে আজ বুধবার থেকে বসে খেতে পারবেন ম্যাক ফুড ভক্তরা।
ম্যাকডোনাল্ড কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে দেশের প্রায় সাতশো টি রেষ্টুরেন্ট প্রস্তুত তাদের কাস্টমারদের সার্ভিসের জন্য তবে তারা শুধু টেবিল সার্ভিস সেবা পাবেন। সরকারের স্বাস্থ্য বিধি মেনে নির্দিষ্ট সংখ্যক কাস্টমার বসে খেতে পারবেন তাদের নির্দিষ্ট টেবিলে।
ম্যাকডোনাল্ডের প্রতিটি কাস্টমার রেষ্টুরেন্টে পৌঁছেই হেন্ড সেনিটাইজ করতে হবে এবং স্বাস্থ্য নির্দেশনা মানতে হবে।
ম্যাকডোনাল্ড জানিয়েছে কাস্টমাররা তাদের স্থানীয় রেষ্টুরেন্টের বিভিন্ন আপডেট জানতে পারবেন “ম্যাকডোনাল্ড রেষ্টুরেন্ট লোকেটর” ব্যবহার করে।
গত কয়েক সপ্তাহ ধরে রেষ্টুরেন্ট টি “ড্রাইভ থ্রো” এবং ডেলিভারি সার্ভিস চালু করার পর তাদের প্রতিটি ব্রাঞ্চে দীর্ঘ লম্বা লাইন লেগেই রয়েছে। অনেকেই আবার দীর্ঘক্ষনের লাইন এড়াতে ডাবল অর্থ দিয়ে ডেলিভারি সার্ভিস নিচ্ছেন।
উল্লেখ্য করোনা ভাইরাসের কারনে মার্চ মাসের শেষ দিক থেকে বৃটেনের জনপ্রিয় এই রেষ্টুরেন্ট টি বন্ধ ছিলো।