ঢাকা ১১:০৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ মে ২০২৪, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিলেটের মেডিনোভায় ডাঃ শাহ আলম নামে আরেকজন করোনা ব্যবসায়ী আটক।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় বিভিন্ন দেশের ডাক্তাররা যেখানে নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যেভাবে জনগনের জীবন বাঁচাতে কাজ করে যাচ্ছেন সেখানে বাংলাদেশের কিছু ডাক্তার ও এর সাথে সংশ্লিষ্টরা করোনাকে পূঁজি করে বিকৃত মন-মানসিকতা নিয়ে ব্যবসা করে যাচ্ছেন।
সম্প্রতি শাহেদ ও সাবরিনা কেলেংকারি তে বিশ্বের কাছে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি অনেকটা নষ্ট হয় আর তাতে টনক নড়ে সরকারের। শুরু হয় অভিযান আর সেই অভিযানে সিলেটের ডাক্তার পাড়া খ্যাত মধুশহীদ এলাকায় মেডিনোভা মেডিকেল সার্ভিসেস লিমিটেডের নীচ তলায় ডা. এ এইচ এম শাহ আলমের চেম্বারে টাকার বিনিময়ে করোনার ভুয়া সার্টিফিক বিতরণের খবরে হানা দেন র‌্যাব-৯ এর একটি টিম।
অভিযান চালানোর পর এই অভিযোগের সত্যতা বের হয়ে আসে। ডাঃ আলম করোনার ভুয়া সার্টিফিকের দিয়ে বিদেশ যাত্রীদের কাছ থেকে নিতেন টাকা তিনি নিজেকে ওসমানীর চিকিৎসক বলে পরিচয় দিতেন মূলত তিনি ওসমানীর কোন ডাক্তার নয়। ঘটনার সত্যতা পাওয়ার পর জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুনন্দা রায় ডাঃ আলমকে নগদ এক লক্ষ টাকা জরিমানা ও চার মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন।
সরকারের নীতিমালা অনুযায়ী বিদেশ যাত্রী দের করোনা রিপোর্ট বাধ্যতামূলক করার পর থেকে ডাঃ আলম এইসব বিদেশযাত্রী দের লক্ষ্য করেই শুরু করেন তার এই ব্যবসা। রুগী না দেখেই নির্দিষ্ট কিছু টাকার বিনিময়ে তিনি করোনা মুক্ত সার্টিফিকেট দিতেন।
বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের মতো জাতির একটি দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে যারা এই ধরনের অমানুষিক কাজ করে যাচ্ছেন তাদের কে কঠোর হস্তে দমনের নির্দেশ রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। আর এই লক্ষ্যে সারা দেশের ন্যায় সিলেটে ও এই ধরনের অভিযান অব্যাহত রাখতে কয়েকটি টিম মাটে রয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাষনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুনন্দা রায়।

ট্যাগস

সিলেটের মেডিনোভায় ডাঃ শাহ আলম নামে আরেকজন করোনা ব্যবসায়ী আটক।

আপডেট সময় ০৯:২৮:৫৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ জুলাই ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় বিভিন্ন দেশের ডাক্তাররা যেখানে নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যেভাবে জনগনের জীবন বাঁচাতে কাজ করে যাচ্ছেন সেখানে বাংলাদেশের কিছু ডাক্তার ও এর সাথে সংশ্লিষ্টরা করোনাকে পূঁজি করে বিকৃত মন-মানসিকতা নিয়ে ব্যবসা করে যাচ্ছেন।
সম্প্রতি শাহেদ ও সাবরিনা কেলেংকারি তে বিশ্বের কাছে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি অনেকটা নষ্ট হয় আর তাতে টনক নড়ে সরকারের। শুরু হয় অভিযান আর সেই অভিযানে সিলেটের ডাক্তার পাড়া খ্যাত মধুশহীদ এলাকায় মেডিনোভা মেডিকেল সার্ভিসেস লিমিটেডের নীচ তলায় ডা. এ এইচ এম শাহ আলমের চেম্বারে টাকার বিনিময়ে করোনার ভুয়া সার্টিফিক বিতরণের খবরে হানা দেন র‌্যাব-৯ এর একটি টিম।
অভিযান চালানোর পর এই অভিযোগের সত্যতা বের হয়ে আসে। ডাঃ আলম করোনার ভুয়া সার্টিফিকের দিয়ে বিদেশ যাত্রীদের কাছ থেকে নিতেন টাকা তিনি নিজেকে ওসমানীর চিকিৎসক বলে পরিচয় দিতেন মূলত তিনি ওসমানীর কোন ডাক্তার নয়। ঘটনার সত্যতা পাওয়ার পর জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুনন্দা রায় ডাঃ আলমকে নগদ এক লক্ষ টাকা জরিমানা ও চার মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন।
সরকারের নীতিমালা অনুযায়ী বিদেশ যাত্রী দের করোনা রিপোর্ট বাধ্যতামূলক করার পর থেকে ডাঃ আলম এইসব বিদেশযাত্রী দের লক্ষ্য করেই শুরু করেন তার এই ব্যবসা। রুগী না দেখেই নির্দিষ্ট কিছু টাকার বিনিময়ে তিনি করোনা মুক্ত সার্টিফিকেট দিতেন।
বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের মতো জাতির একটি দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে যারা এই ধরনের অমানুষিক কাজ করে যাচ্ছেন তাদের কে কঠোর হস্তে দমনের নির্দেশ রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। আর এই লক্ষ্যে সারা দেশের ন্যায় সিলেটে ও এই ধরনের অভিযান অব্যাহত রাখতে কয়েকটি টিম মাটে রয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাষনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুনন্দা রায়।