ঢাকা ০৬:৩১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রবল বন্যার আশংকায় ভাটি অঞ্চলের মানুষ।

খোর্শেদ আলমঃ  হবিগঞ্জের বিভিন্ন থানায় বন্যা প্লাবিত হওয়ার আশংকা করছেন আজমিরিগঞ্জ, বানিয়াচংয়সহ শতাধিক গামঅঞ্চল।

হাওরে হুহু করে বাড়ছে পানি।তলিয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন এলাকার ঘরবাড়ী ও চলাচলের সড়ক।রয়েছেন বিপাকে নিম্নাঞ্চলের খেটে খাওয়া মানুষজন।খুব দ্রুত গতিতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ভয়াবহ বন্যার সম্মুখিন হতে হবে বলে ধারনা করছেন এলাকাবাসী।১৭জুলাই শুক্রবার বিকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিভিন্ন এলাকা ঘুরে ঘুরে ওইসব সচিত্র তুলে ধরেন হবিগঞ্জ বানিয়াচং কর্মরত সাংবাদিকরা।সরেজমিনে দেখা যায়- বানিয়াচং হবিগঞ্জ সড়কের বেইলী ব্রীজসহ একাংশ পানির নীচে তলিয়ে গেছে এবং বন্ধ হয়ে পড়েছে চলাচল। এবং উপজেলার কাগাপাশা ইউনিয়নের বিভিন্ন সড়কসহ প্রায় এক হাজার ঘরবাড়ী ডুবে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। অপরদিকে উপজেলা সদরের জনসাধারনের চলাচলের বিভিন্ন সড়ক তলিয়ে গেছে পানির তলদেশে।উল্যেখ্য-চতুরঙ্গরায়ের পাড়ার সড়ক,মোরগাকারা সড়ক, ইনাতখানীর সড়ক,দত্তপাড়া বায়া সড়ক,বাগ দিঘির পাড়ের হাওরে যাওয়ার সড়ক,দেশমূখ্য পাড়া প্রাইমারী স্কুলে যাওয়ার সড়ক,পাড়াগাও বাজার রাস্তা,৪নং ইউপির-পাঠানঠুলা মীর হাটির সড়ক,ইসলামপুর সড়ক,প্রথমরেখ বৈটা হালির রাস্তা,বাসিয়াপাড়া মাদ্রাসা যাওয়ার রাস্তা,মুচি বাড়ীর রাস্তা সহ প্রায় শতাধিক পাড়া মহল্লার রাস্তা ডুবে গেছে আগত আষারের ভাসা পানিতে।এব্যপারে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুদ রানা বলেন-ইতি মধ্যেই কাগাপাশা ইউনিয়নের পানি বন্ধি মানুষের খোঁজ খবর নিতে ওই এলাকা সরেজমিন পরিদর্শন করেছি।এবং খুব দ্রুত পানি বন্ধি মানুষদের সাহায্য করার জন্য পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।

ট্যাগস

প্রবল বন্যার আশংকায় ভাটি অঞ্চলের মানুষ।

আপডেট সময় ০৬:০০:৪৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ জুলাই ২০২০

খোর্শেদ আলমঃ  হবিগঞ্জের বিভিন্ন থানায় বন্যা প্লাবিত হওয়ার আশংকা করছেন আজমিরিগঞ্জ, বানিয়াচংয়সহ শতাধিক গামঅঞ্চল।

হাওরে হুহু করে বাড়ছে পানি।তলিয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন এলাকার ঘরবাড়ী ও চলাচলের সড়ক।রয়েছেন বিপাকে নিম্নাঞ্চলের খেটে খাওয়া মানুষজন।খুব দ্রুত গতিতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ভয়াবহ বন্যার সম্মুখিন হতে হবে বলে ধারনা করছেন এলাকাবাসী।১৭জুলাই শুক্রবার বিকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বিভিন্ন এলাকা ঘুরে ঘুরে ওইসব সচিত্র তুলে ধরেন হবিগঞ্জ বানিয়াচং কর্মরত সাংবাদিকরা।সরেজমিনে দেখা যায়- বানিয়াচং হবিগঞ্জ সড়কের বেইলী ব্রীজসহ একাংশ পানির নীচে তলিয়ে গেছে এবং বন্ধ হয়ে পড়েছে চলাচল। এবং উপজেলার কাগাপাশা ইউনিয়নের বিভিন্ন সড়কসহ প্রায় এক হাজার ঘরবাড়ী ডুবে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। অপরদিকে উপজেলা সদরের জনসাধারনের চলাচলের বিভিন্ন সড়ক তলিয়ে গেছে পানির তলদেশে।উল্যেখ্য-চতুরঙ্গরায়ের পাড়ার সড়ক,মোরগাকারা সড়ক, ইনাতখানীর সড়ক,দত্তপাড়া বায়া সড়ক,বাগ দিঘির পাড়ের হাওরে যাওয়ার সড়ক,দেশমূখ্য পাড়া প্রাইমারী স্কুলে যাওয়ার সড়ক,পাড়াগাও বাজার রাস্তা,৪নং ইউপির-পাঠানঠুলা মীর হাটির সড়ক,ইসলামপুর সড়ক,প্রথমরেখ বৈটা হালির রাস্তা,বাসিয়াপাড়া মাদ্রাসা যাওয়ার রাস্তা,মুচি বাড়ীর রাস্তা সহ প্রায় শতাধিক পাড়া মহল্লার রাস্তা ডুবে গেছে আগত আষারের ভাসা পানিতে।এব্যপারে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুদ রানা বলেন-ইতি মধ্যেই কাগাপাশা ইউনিয়নের পানি বন্ধি মানুষের খোঁজ খবর নিতে ওই এলাকা সরেজমিন পরিদর্শন করেছি।এবং খুব দ্রুত পানি বন্ধি মানুষদের সাহায্য করার জন্য পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।