ঢাকা ০৬:৩০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সুন্দর জীবনে ফিরে যেতে মাদকাসক্ত কিশোরকে থানার ওসি’র সহায়তা।

অ আ আবীর আকাশ,লক্ষ্মীপুর:​
লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলায় মাদকাসক্ত এক কিশোরকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার জন্য ওসি সহায়তা করেছেন। মাদকাসক্ত ইমরান হোসেন রাব্বি (১৭) নামের ওই কিশোরকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনার দায়িত্ব নিয়েছেন লক্ষ্মীপুরের রায়পুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল জলিল।
​ মাদকাসক্ত কিশোরকে থানায় তার কার্যালয়ে ডেকে এনে পড়ালেখার জন্য আর্থিক সহায়তা দেন তিনি।
স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার চরমোহনা ইউনিয়নের ইমরান হোসেন রাব্বি (১৭) নামে এক কিশোর বিভিন্ন ধরনের মাদকের নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ে। এ নিয়ে ওই ছেলের মা রায়পুর থানায় অভিযোগ করেন।
অভিযোগের ভিত্তিতে মাদকাসক্ত ছেলে ও তার মাকে থানায় ডেকে আনা হয়। এসময় কিশোর রাব্বি আর মাদক গ্রহন করবে না বলে আশ্বাস দেয়। থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল জলিল ওই কিশোরকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আনতে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।
তাকে আবারও পড়ালেখায় মনোনিবেশ করার অনুরোধ করে, পড়ালেখার খরচ ও বই কেনার জন্য আর্থিক সহায়তা দেন ওসি আবদুল জলিল।
প্রসঙ্গত, লক্ষ্মীপুরের রায়পুর থানা এলাকায় মাদকের ব্যাপক বিস্তার রয়েছে। সম্প্রতি এ থানায় অফিসার ইনচার্জ পদে আবদুল জলিল যোগ দেয়ার পর, তিনি মাদক মুক্ত করার ঘোষণা দেয়। সেজন্য সকলের সহযোগিতা চান তিনি।
এদিকে আবদুল জলিল এ থানায় অফিসার ইনচার্জ পদে যোগদানের পর থানায় মানুষের সেবা নিশ্চিত করতে ও আইনশৃঙ্খলার উন্নয়নে নেয়া নানা পদক্ষেপ প্রশংসিত হয়।
ট্যাগস

সুন্দর জীবনে ফিরে যেতে মাদকাসক্ত কিশোরকে থানার ওসি’র সহায়তা।

আপডেট সময় ০৩:৪৯:১০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ জুলাই ২০২০
অ আ আবীর আকাশ,লক্ষ্মীপুর:​
লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলায় মাদকাসক্ত এক কিশোরকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার জন্য ওসি সহায়তা করেছেন। মাদকাসক্ত ইমরান হোসেন রাব্বি (১৭) নামের ওই কিশোরকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনার দায়িত্ব নিয়েছেন লক্ষ্মীপুরের রায়পুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল জলিল।
​ মাদকাসক্ত কিশোরকে থানায় তার কার্যালয়ে ডেকে এনে পড়ালেখার জন্য আর্থিক সহায়তা দেন তিনি।
স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার চরমোহনা ইউনিয়নের ইমরান হোসেন রাব্বি (১৭) নামে এক কিশোর বিভিন্ন ধরনের মাদকের নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ে। এ নিয়ে ওই ছেলের মা রায়পুর থানায় অভিযোগ করেন।
অভিযোগের ভিত্তিতে মাদকাসক্ত ছেলে ও তার মাকে থানায় ডেকে আনা হয়। এসময় কিশোর রাব্বি আর মাদক গ্রহন করবে না বলে আশ্বাস দেয়। থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল জলিল ওই কিশোরকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আনতে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।
তাকে আবারও পড়ালেখায় মনোনিবেশ করার অনুরোধ করে, পড়ালেখার খরচ ও বই কেনার জন্য আর্থিক সহায়তা দেন ওসি আবদুল জলিল।
প্রসঙ্গত, লক্ষ্মীপুরের রায়পুর থানা এলাকায় মাদকের ব্যাপক বিস্তার রয়েছে। সম্প্রতি এ থানায় অফিসার ইনচার্জ পদে আবদুল জলিল যোগ দেয়ার পর, তিনি মাদক মুক্ত করার ঘোষণা দেয়। সেজন্য সকলের সহযোগিতা চান তিনি।
এদিকে আবদুল জলিল এ থানায় অফিসার ইনচার্জ পদে যোগদানের পর থানায় মানুষের সেবা নিশ্চিত করতে ও আইনশৃঙ্খলার উন্নয়নে নেয়া নানা পদক্ষেপ প্রশংসিত হয়।