ঢাকা ০২:৫৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

করোনায় কর্মহীন মানুষদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর তহবিলের চাল দালালদের পেটে।

খুর্শেদ আলম হবিগঞ্জ থেকেঃ   করোনা ভাইরাস( কোভিড- ১৯) এর কারনে আজমিরীগঞ্জ উপজেলার শিবপাশা ইউনিয়নের কর্মহীন মানুষদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ১০ কেজি করে চাল এলাকার কিছু দালালদের পেটে চলে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে৷ উপকার ভোগীদের নিকট থেকে এলাকার কিছু দালাল জোর পুর্বক অতি কম মূল্যে কিনে নিয়ে যাচ্ছে। নিয়ম নীতির তোয়াক্ষা না করেই ইউনিয়ন অফিস চত্তরেই এই দালাল চক্রটি মজমা বসিয়ে উপকারভোগিদের কাছে থেকে জোরপূর্বকভাবেই অতি কম মূল্যে কিনে নিয়ে যাচ্ছে৷ তালিকায় নাম থাকা লোকজন গরিব অসহায় ও নিরীহ হওয়ায় তাদের প্রতিবাদ করার সাহস নাই৷ ইউনিয়ন অফিসের কার্যালয়ের ভিতরেই শিবপাশা গ্রামের কতিপয় চিহ্নিত দালাল সরকারী চাল নিতে আসা উপকারভোগিদের কাছ থেকে চালগুলো নিয়ে নিচ্ছেন৷ আর এই দালালদেরকে শেল্টার দিয়ে যাচ্ছেন কয়েকজন ইউপি সদস্য৷ এমকি ২/৩ জন ইউপি সদস্য দালালদের চাল ক্রয় করার কাজে তদারকিও করছেন বলে জানিয়েছেন কয়েকজন উপকারভোগি। একটি সূত্রে জানা গেছে,ইতিমধ্যে বিতরনকৃত ৮০ ভাগ উপকারভোগি লোকজনের চাল হাতিয়ে নিয়েছে ওই দালাল চক্রটি৷

নাম প্রকাশ করার না শর্তে এক ভোগতোভুগি
জানিয়েছেন শিবপাশা ইউনিয়নের ছালেক মিয়া ও আফজল মিয়া,তকদির মিয়া,নুর আলি সহ কয়েকজন চিহ্নিত দালাল চাল নিতে আসা লোকজনদের কাছ থেকে কম দামে চালগুলো কিনে নিয়ে যাচ্ছে৷
।ফলে করোনাকালীন এই ক্রান্তিকালে গরিব অসহায় লোকজনদেরকে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া উপহার ১০ কেজি করে চাল চলে যাচ্ছে দালালদের পেটে৷
জানা গেছে, গত ১২ জুলাই থেকে শিবপাশা ইউনিয়নে নতুন করে প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে ১০ কেজি করে চাল বিতরণ করা শুরু হয়েছে৷ ইউনিয়নের ২৪০০ পরিবারের মাঝে এই চাল বিতরন চলবে৷ ইতিমধ্যে ৮০ শতাংশ পরিবারের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে৷ আরো ২/৩ দিন চলবে বিতরণ কার্যক্রম৷
এ ব্যাপারে আজমিরিগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মতিউর রহমান খান জানান,আজকেই শিবপাশা ইউনিয়নের প্রধানমন্ত্রীর তহবিলের চাল বিতরণ শেষ হওয়ার কথা৷ আমার কাছে অভিযোগটি আসেনি৷ তারপরেও আমি চেয়ারম্যান এর সাথে কথা বলবো৷ এরকম যদি হয়ে থাকে তাহলে ব্যবস্হা নেয়া হবে৷

###

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

করোনায় কর্মহীন মানুষদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর তহবিলের চাল দালালদের পেটে।

আপডেট সময় ০২:০২:০২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই ২০২০

খুর্শেদ আলম হবিগঞ্জ থেকেঃ   করোনা ভাইরাস( কোভিড- ১৯) এর কারনে আজমিরীগঞ্জ উপজেলার শিবপাশা ইউনিয়নের কর্মহীন মানুষদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ১০ কেজি করে চাল এলাকার কিছু দালালদের পেটে চলে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে৷ উপকার ভোগীদের নিকট থেকে এলাকার কিছু দালাল জোর পুর্বক অতি কম মূল্যে কিনে নিয়ে যাচ্ছে। নিয়ম নীতির তোয়াক্ষা না করেই ইউনিয়ন অফিস চত্তরেই এই দালাল চক্রটি মজমা বসিয়ে উপকারভোগিদের কাছে থেকে জোরপূর্বকভাবেই অতি কম মূল্যে কিনে নিয়ে যাচ্ছে৷ তালিকায় নাম থাকা লোকজন গরিব অসহায় ও নিরীহ হওয়ায় তাদের প্রতিবাদ করার সাহস নাই৷ ইউনিয়ন অফিসের কার্যালয়ের ভিতরেই শিবপাশা গ্রামের কতিপয় চিহ্নিত দালাল সরকারী চাল নিতে আসা উপকারভোগিদের কাছ থেকে চালগুলো নিয়ে নিচ্ছেন৷ আর এই দালালদেরকে শেল্টার দিয়ে যাচ্ছেন কয়েকজন ইউপি সদস্য৷ এমকি ২/৩ জন ইউপি সদস্য দালালদের চাল ক্রয় করার কাজে তদারকিও করছেন বলে জানিয়েছেন কয়েকজন উপকারভোগি। একটি সূত্রে জানা গেছে,ইতিমধ্যে বিতরনকৃত ৮০ ভাগ উপকারভোগি লোকজনের চাল হাতিয়ে নিয়েছে ওই দালাল চক্রটি৷

নাম প্রকাশ করার না শর্তে এক ভোগতোভুগি
জানিয়েছেন শিবপাশা ইউনিয়নের ছালেক মিয়া ও আফজল মিয়া,তকদির মিয়া,নুর আলি সহ কয়েকজন চিহ্নিত দালাল চাল নিতে আসা লোকজনদের কাছ থেকে কম দামে চালগুলো কিনে নিয়ে যাচ্ছে৷
।ফলে করোনাকালীন এই ক্রান্তিকালে গরিব অসহায় লোকজনদেরকে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া উপহার ১০ কেজি করে চাল চলে যাচ্ছে দালালদের পেটে৷
জানা গেছে, গত ১২ জুলাই থেকে শিবপাশা ইউনিয়নে নতুন করে প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে ১০ কেজি করে চাল বিতরণ করা শুরু হয়েছে৷ ইউনিয়নের ২৪০০ পরিবারের মাঝে এই চাল বিতরন চলবে৷ ইতিমধ্যে ৮০ শতাংশ পরিবারের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে৷ আরো ২/৩ দিন চলবে বিতরণ কার্যক্রম৷
এ ব্যাপারে আজমিরিগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মতিউর রহমান খান জানান,আজকেই শিবপাশা ইউনিয়নের প্রধানমন্ত্রীর তহবিলের চাল বিতরণ শেষ হওয়ার কথা৷ আমার কাছে অভিযোগটি আসেনি৷ তারপরেও আমি চেয়ারম্যান এর সাথে কথা বলবো৷ এরকম যদি হয়ে থাকে তাহলে ব্যবস্হা নেয়া হবে৷

###